আজকালের প্রতিবেদন- মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি চান তৃণমূল কংগ্রেসের ‘‌ডিজিটাল টিম’‌ যেন দেশে এক নম্বর হয়। সোমবার ভিড়ে ঠাসা নজরুল মঞ্চে অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস আয়োজিত ‘‌ডিজিটাল কনক্লেভ’‌–এ এক অডিও বার্তায় তৃণমূল নেত্রী বলেন, ‘ডিজিটাল টিম এমন করতে হবে যাতে লোকে বলে, তোমাদের টিমটা ধার দাও।’ 
উপস্থিত তৃণমূলের সাইবার সেলের কর্মী, বিভিন্ন কলেজের পড়ুয়া, সমর্থকদের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এটা টাকার বিনিময়ে তৈরি নয়। এটা আদর্শ। তোমাদের ওপর নির্ভর করছে পার্টির ভবিষ্যৎ। নেটওয়ার্ক বাড়ানোর জন্য ছাত্ররা বাড়িতে মা–‌বাবাকে উৎসাহ দেবে।’‌ সোশ্যাল মিডিয়ায় সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‌‘‌হিন্দি ভাষাতেও মাঝে মাঝে টুইট করতে হবে।’‌ তিনি বলেন, ‘‌খবর পেলে পুলিসকে দিন। জেলায় জেলায় আরএসএস–এর লোক আসছে প্রচারের নাম করে। ঝাড়খণ্ড থেকে, অসম থেকে, ওডিশা থেকে টাকা আসছে। দীপ্তাংশুদের (‌কর্নেল দীপ্তাংশু চৌধুরি)‌ জানাবেন। ওঁরা আমাকে জানাবেন। খবর সঠিক হলে পুরস্কৃত করা হবে।’‌ সাইবার সেলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য তিনি বলেন, ‘ভাল কাজের জন্য জেলায় জেলায় প্রতিযোগিতা হোক। আমি পুরস্কার দেওয়ার কথা বলব। কাজ পেলে সুবিধা হবে মনে হলে, ডিজিটালে যারা ভাল কাজ করবে, দীপ্তাংশুকে তাদের তালিকা তৈরি রাখতে বলব।’ তিনি জানিয়েছেন, যাঁরা ডিজিটালে কাজ করছেন তাঁদের প্রত্যেকের ছবি এবং ‘‌বায়োডেটা’‌ তৈরি রাখতে হবে।‌ বিজেপি–‌র উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘‌বিজেপি–‌র টাকা আছে। ওদের বিশ্বাস করবেন না। মানুষের জীবনের দাম অনেক বেশি। বাংলাকে যারা হিংসা করে তারা কুমন্তব্য করে। আমাদের সরকার জনগণের সরকার।’‌ তিনি বলেন, যে–‌কোনও তথ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় দেওয়ার আগে তার সত্যতা যাচাই করে নিতে বলেছেন তিনি। আগামী দিনে প্রতি তিন মাস অন্তর এই ধরনের সভার আয়োজন করতে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী।   
সভায় যুব তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি এবং সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি বলেন, ‘বিজেপি–‌র যে কমিউনিটি পেজ আছে সেখানে ঢুকে যুক্তির লড়াই চালাতে হবে। প্রতিটি বিধানসভায় আমাদের ১০০টা করে সাইবার সৈনিক চাই। আমাদের টুইটারটাকে আরও সক্রিয় করতে হবে। আমি দীপ্তাংশুদের অনুরোধ করব প্রতি মাসে আমাদের কর্মীদের সঙ্গে বসতে। আগামী দিনে নেতাজি ইন্ডোরে এরকম একটা কনক্লেভ করে মমতা ব্যানার্জিকে অনুরোধ করব যেন উনি আসেন।’

নজরুল মঞ্চে অভিষেক ব্যানার্জি। ছবি: বিজয় সেনগুপ্ত

জনপ্রিয়

Back To Top