আজকালের প্রতিবেদন: কলকাতা শহরে প্রায়ই শোনা যায় বৃদ্ধ–‌বৃদ্ধাদের ওপর নির্যাতনের ঘটনা। কখনও দম্পতি খুন, কখনও–‌বা হাত–‌পা বেঁধে লুঠপাট। এ ছাড়া ছেলেমেয়েদের হাতেও নানা ভাবে অত্যাচারিত হন তঁারা। কলকাতা পুলিশের বিশেষ প্রকল্প ‘‌প্রণাম’‌ এই বৃদ্ধ–‌বৃদ্ধাদের নিরাপত্তার দিকটি দেখাশোনা করলেও, অনেক ক্ষেত্রেই দেখা গেছে, আইনগত সহায়তার বিষয়টি প্রবীণেরা জানতেন না। এবার কলকাতা পুলিশের কমিউনিটি পুলিশ উইং এবং হেল্পএজ ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশনের সহায়তায় প্রকাশ করা হল একটি বিশেষ আবেদনের ফর্ম। বুধবার কেআইটি বিল্ডিংয়ে কলকাতা পুলিশ এবং ওই সংস্থার যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ফাউন্ডেশনের কর্ণধার অনুরাধা সেন জানান, ওই ফর্মের মাধ্যমে নিজেদের সুবিধে–‌অসুবিধের কথা পূরণ করতে পারবেন প্রবীণেরা। সমস্ত থানায় ফর্ম পাওয়া যাবে। কলকাতা পুলিশের প্রতিটি ডিভিশনে সহকারী কমিশনাররা বিষয়টি দেখাশোনা করবেন। ফর্ম পূরণের পর সংশ্লিষ্ট থানায় জমা দিতে হবে। এর পর ফর্মগুলি যাবে এসডিও–‌র কাছে। মামলার বিচার হবে ট্রাইব্যুনালে। কোন্‌ কোন্‌ থানা ট্রাইব্যুনালের আওতায় পড়বে, তাও নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। ২০০৭ সালের সিনিয়র সিটিজেন্স এবং পেরেন্টস অ্যাক্ট মোতাবেক আইন লঙ্ঘনকারীদের ন্যূনতম শাস্তি তিন মাসের জেল এবং পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা হতে পারে। সর্বাধিক জরিমানা ১০ হাজার টাকা। এই বিশেষ পদক্ষেপের আর–‌একটি দিক হল, রায়ের বিরুদ্ধে অভিযুক্ত পক্ষ কোনও আবেদন জানাতে পারবেন না। তবে অপরাধের গুরুত্ব অনুযায়ী পুলিশ আলাদা ভাবে এফআইআর করে ভারতীয় দণ্ডবিধি মতে ব্যবস্থা নিতে পারবে।

জনপ্রিয়

Back To Top