আজকালের প্রতিবেদন: দ্বি‌‌শতাব্দীপ্রাচীন কলিঙ্গ ব্যাপটিস্ট চার্চের দ্বিশতবর্ষ উদযাপিত হল বৃহস্পতিবার। চারদিনব্যাপী অনুষ্ঠান চলবে আরাধনা, ধন্যবাদ জ্ঞাপন, সাংস্কৃতিক ও সামাজিক কর্মধারাকে পাথেয় করে। বর্ষব্যাপী নানান সামাজিক কাজের মধ্য দিয়ে চলবে এই উদযাপন পর্ব। জানালেন চার্চের বর্তমান পুরোহিত রেভাঃ আশিসকুমার সরকার। যিনি ২৫ বছর যাবৎ এই চার্চের দায়িত্বভার বহন করছেন। উল্লেখ্য, কলিঙ্গ ব্যাপটিস্ট মণ্ডলী কলকাতার প্রাচীনতম বাংলা মণ্ডলী। মাত্র ৪ জন বাঙালি খ্রিস্ট অনুসরণকারীর উপাসনার মাধ্যমে এই মণ্ডলীর পথচলা শুরু ১৯২১ খ্রিস্টাব্দে। প্রথম দিকে ‘‌নেটিভ চ্যাপেল কালেঙ্গা’‌ নামে পরিচিত ছিল। সে সময় রিপন স্ট্রিটের এই অঞ্চলটির নাম ছিল ‘‌কালেঙ্গা’। সেই ‘‌কালেঙ্গা’‌ সময়ের সরণি বেয়ে এখন ‘‌কলিঙ্গ’‌। বর্তমান উপাসনালয়টি স্থাপিত হয় ১৮৩২ সালে। প্রথম পালক রেভাঃ ডব্লু এইচ পিয়ার্স। পরে আরও অনেক পুরোহিত এই মণ্ডলীর সেবায় নিযুক্ত ছিলেন। বর্তমান পুরোহিত রেভাঃ আশিসকুমার সরকার ২৫ বছর যাবৎ এই দায়িত্বভার সামলাচ্ছেন। শুধু বাংলাভাষী খ্রিস্টান নয়, আগে এখানে তামিল ও তেলুগুভাষী ভক্তরাও উপাসনা করতেন। এখন বাংলাভাষী খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের পাশাপাশি মণিপুরের কুকি সম্প্রদায়ও এখানে উপাসনা করে। এছাড়াও মূক–বধিররা উপাসনায় অংশ নেন প্রতি রবিবার। সামাজিক কর্তব্য পালনে সদা সচেষ্ট এই মণ্ডলী প্রতি বুধবার একটি দাতব্য চিকিৎসালয়ের ব্যবস্থা করেছে। কলিঙ্গ ব্যাপটিস্ট মণ্ডলীর পরিচালনায় নিউ টাউন হাটগাছিয়ায় চলছে দুঃস্থদের জন্য অবৈতনিক কোচিং ক্লাস।‌‌‌‌‌‌

কলিঙ্গ ব্যাপটিস্ট চার্চ। ছবি: আজকাল

জনপ্রিয়

Back To Top