আজকালের প্রতিবেদন: ‘‌আমিও তো হল পাইনি। তা বলে কি কেঁদেকেটে বেড়াই!‌’‌ মহাজাতি সদনের বুকিং নিয়ে আরএসএস–এর তোলা অভিযোগ সম্পর্কে এই মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির। বৃহস্পতিবার নজরুল মঞ্চে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারি কর্মচারী ফেডারেশনের অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, নেতাজি ইন্ডোরে এই সভাটি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেখানে আগে থেকে বুকিং ছিল। কী করে সেই বুকিং বাতিল করব?‌ তাই এখানে সভা করতে হল। আমি নেতাজি ইন্ডোর পেলাম না বলে এখন কেঁদেকেটে বেড়াই আর কি!‌ যাঁরা এমন কাজ করেন তাঁদের কি শোভা পায়?‌ শোভা পায় না। ইদানীং কেউ কেউ কুৎসার চচ্চড়ি খেতে ভালবাসেন দেখছি। ‌কুৎসা করতে চান। কেউ কেউ নাটক করার জন্য এ সব করছেন। আবার বলছেন আমি নাকি ভয় পেয়েছি। তাই হল বুক করতে দিইনি। বন্দুকের সামনে লড়াই করতে ভয় পেলাম না। এখন কোথা কোথা থেকে এই হরিদাসরা এসেছেন!‌ কিম্ভূতকিমাকার‌। কতগুলি তৈরি হয়েছে। হল পাইনি বলে আমরা তো মানিয়ে নিয়ে চলেছি। আমরা কি সেখানকার বুকিং বাতিল করেছি?‌ আমি নিজে নিয়ম ভাঙব কী করে?‌ আর কতগুলি এসেছে। হল না পেলে সকাল থেকে চিৎকার শুরু করে দেয়। বুকিং থাকলেও ইচ্ছে করে ওইদিনই বুকিং করতে চাইছেন। টক শো–র নামে ফেক শো চলছে। আরে আগে দেখুন কী হচ্ছে। ‘‌র’‌, রেড্ডির টাকায় কী করে আয় সামাল দেওয়া যায়, সে সব করে বেড়াচ্ছে। বাজে বাজে সব, সবাই জানে। সরাসরি কেন্দ্রের মদতে চলছে এ সব। খালি বাংলার বিরুদ্ধে কুৎসা করে বেড়াও। কারণ বাংলা সবার থেকে এগিয়ে। প্রসঙ্গত, অক্টোবরের ৩ তারিখে মহাজাতি সদনে সভা করতে চেয়েছিল ভগিনী নিবেদিতা মিশন ট্রাস্ট। উপস্থিত থাকার কথা ছিল সরসঙ্ঘচালক মোহন ভাগবত, রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর। মহাজাতি সদন কর্তৃপক্ষ আয়োজকদের জানিয়েছেন সংস্কারের জন্য সেখানে সভার অনুমতি দেওয়া যাচ্ছে না। এ নিয়ে আরএসএস নেতা মনমোহন বৈদ্যের প্রতিক্রিয়া ছিল, তাঁদের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নিতেই প্রশাসন এই কাজ করছে।‌

মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

জনপ্রিয়

Back To Top