আজকালের প্রতিবেদন- শুধুমাত্র মশাবাহিত রোগের চিকিৎসার জন্য একটি ৩০০ শয্যার হাসপাতাল তৈরি করা হবে খিদিরপুরে। সোমবার জানিয়েছেন কলকাতার মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম। কলকাতা পুরসভা এ ব্যাপারে উদ্যোগ নিয়েছে। এখানে ডেঙ্গি, ম্যালেরিয়া থেকে সমস্ত মশাবাহিত রোগের চিকিৎসার পাশাপাশি আধুনিক পরীক্ষাগারও থাকবে বলে জানিয়েছেন ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ।
শীতের শুরু হলেও ডেঙ্গি–আতঙ্ক পিছু ছাড়ছে না শহরবাসীর। এজন্য আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনাকে দায়ী করলেন মহানাগরিক। জানালেন, মশা নিয়ে মানুষ রীতিমতো ভয়ে। সাধারণত শীতে ডেঙ্গি মশার উপদ্রব দেখা যায় না। কিন্তু এখন বর্ষার সময় বৃষ্টি হয় না। বর্ষাবিদায়ের সময় বৃষ্টি শুরু হয়। যার রেশ চলে পুজোর শেষ পর্যন্ত। শীত চলে এলেও ঠান্ডার লেশ নেই। আবহাওয়ার এই খামখেয়ালিপনার জেরেই এই বিপত্তি। এদিন মেয়র শহরবাসীকে সচেতন থাকার আহ্বান জানান। ডেপুটি মেয়রের বক্তব্য, খিদিরপুরে আধুনিক একটি হাসপাতাল তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। মশাবাহিত রোগের চিকিৎসা ও পরীক্ষার সবরকম আধুনিক আয়োজন রাখা হবে। খিদিরপুরে একটা জায়গা রয়েছে, সেখানেই হাসপাতাল করার ভাবনাচিন্তা চলছে।
এদিকে, ডেঙ্গিতে দু‌জন, ম্যালেরিয়াতে একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। বিষ্ণুপুরের সুরজিৎ সামন্ত (‌৩৭)‌ বৃহস্পতিবার ভর্তি হন অ্যাপোলো গ্লেনইগলস হাসপাতালে। রবিবার মারা যান। কলকাতার রাজা নবকৃষ্ণ স্ট্রিটের ২৫ বছরের রোহিত কুমার বরানগরের এক বেসরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গিতে মারা যান।‌‌‌‌ বড়বাজারের রাজিয়া সিকন্দর (‌৪৯)‌ মাড়োয়ারি রিলিফ সোসাইটি হাসপাতালে সোমবার দুপুরে মারা যান। ডেথ সার্টিফিকেটে ম্যালেরিয়ার উল্লেখ রয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top