আজকালের প্রতিবেদন: দেশের ‌অন্য শহরগুলির তুলনায় কলকাতা অনেক নিরাপদ। ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর তথ্য উদ্ধৃতি করে এ কথা জানালেন কলকাতার নগরপাল অনুজ শর্মা। শনিবার ‘‌ইনফোকম স্টেট ফোরাম ২০১৯’‌–এর তৃতীয় দিনে ‘‌ট্যাকলিং দ্য রাইজ অ্যান্ড স্প্রেড ক্রাইম’ শীর্ষক‌ আলোচনাসভায় বলছিলেন নগরপাল। তিনি জানান, কলকাতা এখন আগের থেকেও অনেক নিরাপদ শহর। অপরাধ রুখতে নজরদারি বাড়ানোর বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে কলকাতা পুলিশ। সাইবার ক্রাইম রুখতেও আরও বেশি তৎপর রয়েছে পুলিশ। কলকাতা শহর জুড়ে এখন ৩,০০০ সিসি ক্যামেরা রয়েছে। সেগুলির মাধ্যমে অপরাধ ঘটলেই পুলিশের কাছে প্রয়োজনীয় তথ্য পৌঁছে যাচ্ছে। কিছুদিন আগে সিসি ক্যামেরার সূত্র ধরে অপরাধী ধরা হয়েছে। তবে আরও আধুনিক প্রযুক্তির প্রয়োজন রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। ফেস আইডেন্টিফিকেশনের কাজ চলছে। এর মাধ্যমে অপরাধীদের সহজেই শনাক্ত করা যাবে বলেও আলোচনাসভায় জানান তিনি। 
কলকাতায় হিংসা বা অপরাধের সংখ্যা খুবই কম বলে পরিসংখ্যান দিয়েছে ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরো। রিপোর্টে জানানো হয়েছে, দেশের ১৯টি শহরের মধ্যে কলকাতাই সব থেকে নিরাপদ। প্রতি ১ লক্ষ জনসংখ্যার নিরিখে কলকাতায় অপরাধের সংখ্যা অনেক কম। ২০১৭ সালে ১ লক্ষ জনসংখ্যার পেছনে কলকাতায় অপরাধের সংখ্যা ছিল ১৪১.২। তার আগের বছর, ২০১৬ সালে এই সংখ্যাটা ছিল ১৫৯.৬। এই নিরিখে গোটা দেশের গড় ৪৬২.২। অর্থাৎ, ১ লক্ষ জনসংখ্যার পেছনে অপরাধের সংখ্যার নিরিখে গোটা দেশের গড়ের তুলনায় কয়েক যোজন এগিয়ে কলকাতা। এই তালিকায় কলকাতার পরেই রয়েছে কোয়েম্বাটোরের নাম। এরপর তৃতীয় স্থানে রয়েছে হায়দরাবাদ। পরপর ৪ বছরের পরিংখ্যান বলছে, কলকাতায় কমেছে অপরাধের সংখ্যা। অপরাধের তালিকায় দেশের মধ্যে সর্বোচ্চ স্থানে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ।‌

 

 

ইনফোকমের সভায় নগরপাল অনুজ শর্মা। ছবি: অভিজিৎ মণ্ডল

জনপ্রিয়

Back To Top