আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ শহর কলকাতায় ফের করোনা রোগীর চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ। এবার কাঠগোড়ায় খোদ স্বাস্থ্য দপ্তর। কলকাতার ভবানীপুরে একই পরিবারের চারজন করোনা করোনা আক্রান্ত হন। ওই পরিবারের বাড়ির ছেলে কর্মসূত্রে ভিন রাজ্যে থাকেন। পরিবারের চারজন আক্রান্ত হয়েছেন, এই খবর পেয়েই তাদের জন্য অনলাইনে স্বাস্থ্যভবনে নাম নথিভুক্ত করান। কিন্তু অভিযোগ, নথিভুক্তকরণের প্রায় আট ঘণ্টা পর বাড়িতে আসে অ্যাম্বুলেন্স। এমনকি, তারপরেও তাঁর ৭০ বছরের বৃদ্ধা মা-‌‌কে কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে করোনা আক্রান্ত আরতি চ্যাটার্জি-কে ভর্তি নিতে অস্বীকার করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

তবে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাফাই, স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে তাদের কাছে কোনও রোগীর নাম আসেনি। গতকাল রাত ১১টা থেকে হাসপাতালের এমার্জেন্সি গেটের সামনে অ্যাম্বুলেন্সের মধ্যেই প্রায় তিন ঘন্টা শয্যাশায়ী অবস্থায় ছিলেন ওই করোনা আক্রান্ত প্রৌঢ়া। এতক্ষণ কেটে যাওয়ার পর পরিবারের লোকজন স্বাস্থ্য ভবনের পাঠানো অ্যাম্বুলেন্সের চালককে ওই প্রৌঢ়াকে বাড়িতে ছেড়ে দেওয়ার কথা বললে অ্যাম্বুলেন্সের চালক জানায় তাঁর কাছে বাড়ি ফেরার কোনও নির্দেশিকা না থাকায় তিনি ছেড়ে দিতে পারবেন না। তারপরই গভীর রাতে সংবাদমাধ্যমকে জানানো হলে সেখানে সাংবাদিকদের তৎপরতায় তড়িঘড়ি ভর্তি নেয় হাসপাতাল। এই রকম মুহুর্মুহু ঘটনা ঘটে চলেছে প্রতিনিয়ত। সব ঘটনাগুলি প্রচারের আলোয় আসছে না। তবে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফের একবার প্রশ্নের মুখে রাজ্যের স্বাস্থ্যব্যবস্থা। 

Back To Top