‌‌‌আজকালের প্রতিবেদন: আলিপুর বডিগার্ড লাইন্সের প্রেক্ষাগৃহটির আধুনিকীকরণ হচ্ছে। তথ্যচিত্র ও সিনেমা দেখানোর জন্য কলকাতা পুলিস এই উদ্যোগ নিয়েছে। লাগানো হয়েছে আধুনিক সাউন্ডবক্স। সিনেমা হলের মতোই বিশেষ সাদা স্ক্রিনও লাগানো হয়েছে। ইতিমধ্যেই চলে এসেছে সিনেমায় ব্যবহৃত প্রোজেক্টর মেশিন। কাজ প্রায় শেষের পথে। লালবাজার সূত্রে খবর, প্রধানত পুলিস এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যদের জন্যেই এই ব্যবস্থা। সপ্তাহের কোনও একদিন সিনেমা বা তথ্যচিত্র দেখানোর ব্যবস্থা করা হবে। তদন্তের প্রয়োজনে পুলিস আধিকারিকরাও ওই অডিটোরিয়াম ব্যবহার করবেন। গোয়েন্দা কাহিনীমূলক সিনেমাও দেখানো হতে পারে। বাইরে থেকে কোনও অতিথি এলে আধুনিক এই প্রেক্ষাগৃহ কাজে লাগানো হতে পারে। এ ছাড়া কলকাতা পুলিস সমাজসেবামূলক যে সব কর্মসূচি নিয়ে থাকে, তার জন্য বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সাহায্য নেওয়া হয়। তাদের সঙ্গে নিয়ে ‘‌প্রণাম’, ‘‌নবদিশা’, ‘‌প্রবাহ’‌  ‘কিরণ’–এর ‌মতো প্রকল্প হাতে নিয়েছে পুলিস। এই সংগঠনগুলি সারা বছরই নাগরিকদের জন্য কাজ করে থাকে। তাদেরও এই প্রেক্ষাগৃহে সিনেমা দেখানোর ব্যবস্থা করা হবে। তবে কবে থেকে এই প্রেক্ষাগৃহ খুলে দেওয়া হবে, সে বিষয়ে নির্দিষ্ট করে লালবাজারের তরফে কিছু জানানো হয়নি। ওই প্রেক্ষাগৃহের দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিসকর্মীর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, এখনও কাজ চলছে। শেষ হলে এ বিষয়ে মন্তব্য করা যাবে। তবে প্রেক্ষাগৃহে তথ্যচিত্র বা সিনেমা দেখানোর একটি উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। লালবাজারের কর্তারা ঠিক সময় জানাবেন। মঙ্গলবার বডিগার্ড লাইন্সে গিয়ে দেখা গেল, কাজ চলছে পুরোদমে। প্রোজেক্টর মেশিন থেকে সাউন্ডবক্স— সব কিছু লাগানো হয়ে গেছে। এমনকী বিশেষ সাদা স্ক্রিনও চলে এসেছে। আসনগুলিও মাল্টিপ্লেক্সের মতোই। যে কোনও মাল্টিপ্লেক্সকে টেক্কা দিতে পারবে।

জনপ্রিয়

Back To Top