অংশু চক্রবর্তী: থার্মোকলের থালা, প্লাস্টিকের জলের বোতল নিয়ে আলিপুর চিড়িয়াখানায় আর ঢোকা যাবে না। দূষণ রুখতে এই পদক্ষেপ করা হয়েছে। জঙ্গলমহল থেকে শালপাতা আসা শুরু হয়ে গেছে। নামমাত্র দামে এগুলি বিক্রি হচ্ছে। পানীয় জলের ব্যবস্থা তো রয়েইছে চিড়িয়াখানার অন্দরে। চিড়িয়াখানার অধিকর্তা আশিস সামন্ত এ কথা জানিয়েছেন। তবে প্লাস্টিকের বোতল যদি কেউ নিয়েও আসেন, নির্দিষ্ট জায়গায়, ডাস্টবিনে ফেলে দিতে হবে। কোনও ভাবেই চিড়িয়াখানার পরিবেশ নষ্ট করা যাবে না। সে–‌ক্ষেত্রে বাড়ি থেকে শালপাতা নিয়ে আসতে পারেন। শীতের মিঠে রো‌দে আজও চিড়িয়াখানার মজাই আলাদা। হালকা শীত আসার সঙ্গে–‌সঙ্গে চিড়িয়াখানায় ভিড় বাড়ছে। গত বছর শীতে এখানে ৩৪ লাখ মানুষ এসেছিলেন। চিড়িয়াখানায় ১০ হাজার পশুপাখি রয়েছে। দেশ–‌বিদেশের পর্যটকেরা নিয়মিত আসেন। এখন রাজ্যের বনমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন রাজীব ব্যানার্জি। শরীর ঠিক রাখার জন্য বাঘ–‌সিংহকে এক দিন উপোস করতে হয় এখানে। ফি–সপ্তাহের বৃহস্পতিবার শুধুমাত্র খাবার জল থাকে, বাঘ–‌সিংহকে খাবার দেওয়া হয় না। রোজ ৭ থেকে ৮ কেজি মাংস খেতে দেওয়া হয়। পরিপাকতন্ত্র ঠিক, শরীর ফিট্ রাখার জন্য ন্যাশনাল জু অথরিটির গাইডলাইন মেনে উপোস, অর্থাৎ ‘‌ফাস্টিং’‌ করানো হয়। বলছিলেন চিড়িয়াখানার অধিকর্তা। নানা সময়ে দেখা গেছে, চিড়িয়াখানায় কিছু মানুষ পশুপাখিদের উত্ত্যক্ত করে। দুর্ঘটনা ঘটেছে। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ কঠোর পদক্ষেপ করেছেন। আশিসবাবু বললেন, কেউ যদি পশুপাখিকে বিরক্ত করে, এক হাজার থেকে দু’‌হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা। জেলও হবে। গত বছর পশুপাখিকে উত্ত্যক্ত করার জন্য ৫০০ থেকে ৭০০ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হয়েছিল। নিরাপত্তারক্ষীরা তঁাদের কর্তব্যে অবিচল। এখন টিকিটের দাম ৩০ টাকা। ছোটদের জন্য ১০ টাকা। স্কুল–‌কলেজের পড়ুয়ারা যদি চিড়িয়াখানায় আসে, সে–‌ক্ষেত্রে স্কুল–‌কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়ে জানাতে হবে।‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top