দীপঙ্কর নন্দী: এনআরসি ও ক্যাব নিয়ে দলের কর্মসূচি ঠিক করতে ২০ ডিসেম্বর দলের চেয়ারপার্সন মমতা ব্যানার্জি বৈঠক ডাকলেন। তৃণমূল ভবনে এই বৈঠকে থাকবে সাংসদ, বিধায়ক, জেলা সভাপতি, শাখা সংগঠনের প্রধান ও জেলার অন্য নেতৃবৃন্দ। এনআরসি ও ক্যাব নিয়ে প্রথম থেকে প্রতিবাদ জানিয়ে এসেছেন মমতা। তিনি সাফ জানিয়েছেন, বাংলায় এনআরসি করতে দেওয়া হবে না। ক্যাব প্রসঙ্গে তাঁর বক্তব্য, গায়ের জোরে, সংখ্যার জোরে বিজেপি নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ করিয়ে নিয়েছে। ইতিমধ্যে সংসদে তৃণমূলের সদস্যরা এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। নাগরিকপঞ্জি নিয়ে শুধু সরবই নন মমতা, রাস্তায় নেমে মিছিলও করেন। দিঘার বাণিজ্য সম্মেলনের মঞ্চ থেকে মমতা নাগরিকপঞ্জির বিরুদ্ধে সোচ্চার হন। 
২০ ডিসেম্বরের বৈঠকে সব স্তরের নেতাকে অতি অবশ্যই উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। ঠিক হয়েছে এনআরসি, ক্যাব নিয়ে মমতা ছাড়া বাইরে এ ব্যাপারে কেউ মন্তব্য করবেন না। শুধু এনআরসি  ও ক্যাব নিয়ে আলোচনা নয়, সাংগঠনিক বিষয় নিয়েও কথা হবে। পুরসভা নির্বাচন দোরগোড়ায়। বিধানসভা নির্বাচনের আগে হাতে বেশি সময় নেই। তাই এখন থেকেই দল ঝাঁপিয়ে পড়ছে। ইতিমধ্যে ‘‌দিদিকে বলো’‌ কর্মসূচি বিভিন্ন জেলায় পালন করছেন নেতারা। মমতার উন্নয়ন নিয়ে জেলায় জেলায় প্রচারও করা হচ্ছে। যাঁরা বিজেপি–‌তে গিয়েছিলেন মমতার প্রতি আস্থা রেখে তাঁদের অনেকেই ফিরে এসেছেন তৃণমূলে। ২০ ডিসেম্বরের বৈঠকে সব বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে। সম্প্রতি তিনটি বিধানসভা উপনির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন। তাঁরাও বৈঠকে থাকবেন। এলাকায় কীভাবে কাজ করতে হবে তা নিয়ে আলোচনা হওয়ার সম্ভাবনা আছে। 
লোকসভা ও রাজ্যসভার অধিবেশন চলায় সাংসদদের  অনেকেই দিল্লিতে রয়েছেন। শুক্রবার রাতে প্রায় সকলেই কলকাতায় ফিরে আসছেন। ইতিমধ্যে তাঁদের বৈঠকের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিধায়কদের খবর দেওয়া হচ্ছে। মমতা ছাড়া বৈঠকে থাকবেন রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি, দলের মহাসচিব পার্থ চ্যাটার্জি, মেয়র ফিরহাদ হাকিম, অরূপ বিশ্বাস, সুদীপ ব্যানার্জি, সৌগত রায়, অভিষেক ব্যানার্জি প্রমুখ। থাকবেন প্রশান্ত কিশোরও। কিছুদিন আগেও মমতা তৃণমূল ভবনে দলের বৈঠকে এনআরসি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। পরে সাংবাদিকদের কাছে দলের কর্মসূচিও ঘোষণা করেন। ইতিমধ্যে দলের পক্ষ থেকে সব ব্লকে এনআরসি ও ক্যাবের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের বোলপুরের ‘‌বিশ্ব ক্ষুদ্র বাজার’‌–এর চাবি তুলে দিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। রয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রী 
অমিত মিত্র, শুভেন্দু অধিকারী। দিঘা কনভেনশন সেন্টারে, মঙ্গলবার। ছবি:‌ অভিজিৎ মণ্ডল

জনপ্রিয়

Back To Top