আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অতীতের সমস্ত ব্রিগেড রেকর্ড ভাঙাই লক্ষ্য বিজেপির। মোদির ব্রিগেডকে সফল করতে ১০ লাখের লক্ষ্যমাত্রাও ধরে দিয়েছেন অমিত শাহ, তেমনটাই জানাচ্ছেন গেরুয়া শিবিরের একাংশ। বাড়তি ‘‌চমক’ হয়ে উঠতে আসার কথা ছিল ‘‌গেরুয়া–ঘনিষ্ঠ’‌‌ বলিউড অভিনেতা অক্ষয় কুমারের। কিন্তু শেষমেশ জানা গেল, হাজির থাকছেন না তিনি। তবে জল্পনা মতো ব্রিগেডে আসছেন মিঠুন। গতকাল রাতেই সেই বার্তা দিয়ে ‘‌ফাটাকেষ্ট’ বলেন, ‘‌অন্য কিছুও ঘটতে পারে।’‌ 
রবিবার সকাল থেকেই মুরলীধর সেন লেনে ভিড় জমিয়েছেন বিজেপির কর্মী–সমর্থকরা। সেখান থেকেই ছোট ছোট মিছিল করে ময়দানের দিকে যাবেন তাঁরা। দূরের জেলা থেকে ইতিমধ্যেই হাজার হাজার সমর্থক এসে পড়েছেন ব্রিগেড মাঠে। ময়দানের ধারে উনুন জ্বালিয়ে চলছে রান্না। ভাত–বাঁধাকপির তরকারি, মাংসও। হনুমান, গোপাল ভাঁড় সেজে ঢোল আর তাসা পার্টি নিয়ে সমাবেশে এসে পড়েছেন বহু সমর্থক। বামেদের পর ব্রিগেডকে ‘‌ঐতিহাসিক’‌ করে তুলতে মরিয়া বিজেপি। বঙ্গ বিজেপির পর্যবেক্ষকের কথায়, ‘‌প্রচুর মানুষ আসছেন। মহিলারাও আসছেন।’‌ তবে নবান্ন দখলের লড়াইয়ে ব্রিগেড যে মাপকাঠি নয়, তা আগেভাগেই জানিয়ে দিচ্ছেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তবে সব কিছুর উর্ধে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে খুশি করাই যে লক্ষ্য, তা মেনে নিচ্ছেন শীর্ষ নেতারা। 
ব্রিগেডে মোদির সঙ্গে মূল মঞ্চে দেখা যেতে পারে মিঠুন চক্রবর্তী, বাবুল সুপ্রিয়, দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, রাহুল সিনহাকে। থাকছেন যশ দাশগুপ্ত, হিরণ চট্টোপাধ্যায়, রিমঝিম মিত্র, পায়েল সরকার, শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়রা।
মোদি বলেন,
• আজ এই ব্রিগেডের মাঠ থেকেই বাংলায় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার প্রথম পদক্ষেপ শুরু হল
• বিজেপির আদর্শ শ্যামাপ্রসাদ। ডিএনএ–তেই রয়েছে বাংলা। এবার আপনারাই বলুন, কারা বহিরাগত
• রাবণ–দৈত্য, কত কী বলেছে আমার নামে!‌ কিন্তু তাও বাংলায় পদ্ম ফুটছে। আপনি লুঠতরাজকে প্রশ্রয় দিয়েছেন। বিভাজনের রাজনীতি করেছেন আপনি দিদি। 
• উনি স্কুটি চালাতে গিয়ে যদি আঘাত পেতেন, তা হলে যে রাজ্যে স্কুটি তৈরি হয়েছে, সেই রাজ্যকেই শত্রু বানিয়ে ফেলতেন। ভবানীপুর যেতে যেতে নন্দীগ্রামের দিকে ঘুরে গেছে স্কুটি। আমি চাই না, আপনি আঘাত পান, কিন্তু যখন নন্দীগ্রামেই যাচ্ছেন, আমি কী করতে পারি!‌
• বাংলার মানুষ আপনাকে দিদি বলেছেন। আর আপনি শুধু নিজের ভাইপোর পিসি হয়ে রয়ে গেলেন।
• আর নয় অন্যায়। দুর্নীতি, তোলাবাজি আর নয়। কাটমানি, সিন্ডিকেট, বেকারত্ব, হিংসা আর নয়। আর তুষ্টিকরণ নয়।
• বামেদের বিরুদ্ধে পরিবর্তনের স্লোগান তুলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মা–মাটি–মানুষের জন্য কাজ করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সেই প্রতিশ্রুতি রেখেছেন কি উনি?
• তারপরই শুরু হয়েছে অত্যাচারের রাজনীতি।
• স্বাধীনতা লড়াইয়ের নামে ক্ষমতায় এসেছিল কংগ্রেস। কিছু উন্নয়ন হয়েছিল সেই সময়ে। তখন বামপন্থীরা বলতেন, কংগ্রেসের কালো হাত ভেঙে দাও, গুড়িয়ে দাও। এখন সেই কালো হাতের কী হল!‌
• অনেক বছর নষ্ট হয়ে গেছে। আর সময় নষ্ট নয়। বাংলার মানুষের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা হয়েছে
• শুধু ক্ষমতাবদল নয়, উন্নয়নের সরকার চাই। 
• স্মার্টসিটি তৈরি হবে, সেতু গড়া হবে, গরিবদের ঘর দেওয়া হবে।
• রাজ্য সরকারের কমিশনবাজির জন্য উন্নয়ন আটকে রয়েছে
• বাংলায় পরিবর্তন আনতে হলে গ্রাম পঞ্চায়েত, নগর নিগমের উন্নতি চাই। 
• বাংলায় ডবল ইঞ্জিন সরকার আনতেই হবে
• কলকাতার সংস্কৃতি রক্ষা করতে হবে। কলকাতার কাছে সমৃদ্ধশালী অতীত এবং সম্ভাবনাময় ভবিষ্যৎ রয়েছে। 
• উন্নয়নের জন্য বাংলায় সব আছে। মাছ হোক বা ভাত, বন্দর হোক বা বাণিজ্য, বাংলার মাটিতে সবকিছু রয়েছে। সঠিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে এগোতে হবে। আমাদের এনডিএ সরকার সেই লক্ষ্য নিয়েই এগোবে। 
• আগামী ২৫ বছরের কথা মাথায় রেখে এবারের বিধানসভা নির্বাচন খুব জরুরি
• আজ থেকে বাংলা নতুন সংকল্প নিয়ে এগিয়ে যাব
• বাংলার থেকে যা ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে, সব ফেরত দেব
• স্বাধীনতার এই ৭৫ বছরে বাংলার যা ক্ষতি হয়েছে, তা আমার থেকে আপনারা বেশি জানেন।
• নতুন বাংলায় তুষ্টিকরণ হবে না। অনুপ্রবেশকারীদের রুখে দেওয়া হবে।
• আসল পরিবর্তনের অর্থ যুবকদের চাকরি, শিল্প গজাবে, আধুনিক পরিকাঠানো তৈরি, গরিবদের উন্নতমানের জীবন, সব স্তরের মানুষের সব ক্ষেত্রে অংশগ্রহণ।
• এখানকার বোন–বেটিদের জন্য দিন–রাত এক করে কাজ করব
• বাংলার পুনর্নিমানের বিশ্বাস দিতে এসেছি
• এই ব্রিগেড ময়দান থেকে আসল পরিবর্তনে বিশ্বাস দিতে এসেছি।
• আপনাদের শুনে কেউ কেউ ভাবছেন, আজই বোধহয় ২ মে
• মিঠুন চক্রবর্তীও এসেছেন 
• আজ সবাই বাংলার উন্নতি চাইছেন
• বাংলা চায় উন্নতি। বাংলায় শান্তি। বাংলা চায় প্রগতিশীল বাংলা। বাংলা চায় সোনার বাংলা
• এরা বাংলার মানুষকে অপমান করেছে। 
• পরিবর্তনের জন্য মমতা দিদির উপর ভরসা করেছিল বাংলার মানুষ। কিন্তু দিদি এবং তাঁর সাঙ্গপাঙ্গরা সেই বিশ্বাস ভেঙে দিয়েছেন। মা–বোনেদের উপর অকথ্য অত্যাচার হয়েছে।
• এই ব্রিগেডের মাঠ অনেক দেশভক্তকে দেখেছে
• এই কলকাতা, বাংলা ভারতের প্রেরণা
• বাংলার মহাপুরুষরা এক ভারত, শ্রেষ্ঠ ভারত ভাবনাকে মজবুত করেছিলেন
• ঐতিহাসিক ব্রিগেড মঞ্চে এসে আপনাদের আশীর্বাদ পেয়ে দারুণ লাগছে
• দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রাণভূমি বাংলা। ভারতের গৌরব বাড়িয়েছে বাংলা
• আপনাদের আবার প্রণাম জানাই
• সব রাস্তা ভরাট হয়ে গেছে
• হেলিকপ্টার দেখছিলাম, ময়দানে কোনও জায়গা খালি নেই।
• রাজনৈতিক জীবনে অনেক সভা করেছি, কিন্তু এতবড় সমাবেশে কখনও সভা করিনি। আজ দেখছি।
• বোন–ভাইদের আমার প্রণাম
দিলীপ ঘোষ বলেন,
• এইবার ২০০ পার
• ১৯–এ হাফ, একুশে সাফ
• লড়াকু কর্মীরা তা করে দেখিয়েছেন
• দু’‌বছর আগে প্রধানমন্ত্রীকে বলেছিলাম, ৫০% আসন দেব
দেবশ্রী চৌধুরি বলেন,
• বাংলাকে বাঁচানোর দায় বিজেপির
• যে বাংলাকে পাকিস্তানের হাত থেকে ছিনিয়ে এনেছেন শ্যামাপ্রসাদ, তাকে রক্ষা করতেই হবে
• যেমন ভাইব্র‌্যান্ট গুজরাট তৈরি করেছি, তেমনই সোনার বাংলা গড়ব
• এবার উন্নয়ন হবে
• এবার বাংলায় শিল্প হবে, চাকরি হবে, টেট হবে
• ৮২ বছরের মা–কে মেরে রক্তাক্ত করে দেওয়ার খেলা
• পশ্চিমবঙ্গ দেখেছে সন্তানের রক্তমাখা ভাত মা খাওয়ানোর ঘটনা
• বাংলায় নতুন সরকার তৈরি হতে চলেছে
• আর কোনও খেলা হবে না পশ্চিমবঙ্গের মাটিতে
মুকুল বলেন, 
• ১৩৬ জন সহকর্মীকে হারিয়েছে বিজেপি
• যে কোনও সময়ে প্রধানমন্ত্রী এসে উপস্থিত হবেন
• বেশি কথা বলব না। 
• ২০১০ সালে একজন বলেছিলেন, পরিবর্তন আনবেন। কিন্তু বাংলা ধ্বংস হয়ে গেছে। 
মিঠুন বললেন,
• আমি জলঢোড়াও নয়, বেলোবোড়াও নই। আমি একটা কোবরা। আমি জাত গোখরো। এক ছোবলে ছবি। এ বার কিন্তু সেটাই হবে। দাদার প্রতি ভরসা রাখবেন।
• মারব এখানে লাশ পড়বে শ্মশানে
• ভুলবেন না বিদ্যাসাগর, দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জনকে।
• অধিকার ছিনিয়ে নিতে এলে রুখে দাঁড়াব
• বাংলায় যাঁরা থাকেন, তাঁরা সবাই বাঙালি
• আমি গর্বিত, আমি বাঙালি
• বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতন্ত্রের সবচেয়ে বড় নেতার সঙ্গে এক মঞ্চে থাকব আমি
• এটা আমার কাছে স্বপ্নের মতো।
শুভেন্দু বলেন,
• চিটফান্ডে যাঁদের টাকা গেছে, ওই তিন কোটি মানুষ বিজেপিকে ভোট দিন। আমরা টাকা ফেরত দেব
• নন্দীগ্রামকে হাতের তালুর মতো চিনি
• নন্দীগ্রামে মাননীয়াকে আমি হারাবোই
• এয়ারপোর্ট করেনি
• গরু চুরি করে ভাইপো
• তৃণমূল জিতলে পশ্চিমবঙ্গ কাশ্মীর হবে। বাংলার গর্ব মমতা, বিবেকানন্দ হারিয়ে গেলেন? মাননীয়াকে কেউ বাংলার মেয়ে বলে মানেন না।
• আপনি বাংলার মেয়ে নন। আপনি অনুপ্রবেশকারীদের ফুফু।
• ৫০০ কোটি টাকা বুদ্ধি কিনেছেন মাননীয়
• আব্বাস বলছেন, সিপিএম কংগ্রেসকে ভোট দিন
• তৃণমূলের হয়ে প্রচার করছেন ত্বহা সিদ্দিকি
• হ–য–ব–র–ল জোট হয়েছে
• আজ মিঠুনদাও ছুটে এসেছেন
• দীনেশজিও একই কথা বলেছেন
• যাঁদের মেরুদণ্ড শক্ত আছে, তাঁরা ওই দলে থাকতে পারবেন না
• তোলাবাজিকে যদি শিকড় থেকে উপড়ে ফেলতে না পারি, তাহলে বাংলার সর্বনাশ হবে
শমীক বলেন,
• এই ব্রিগেড বিজেপির নয়, মানুষের স্বতস্ফূর্ত আবেগের ব্রিগেডে
• গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে ধ্বংস করেছে
• পঞ্চায়েত ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে তৃণমূল
• তৃণমূলের অদূরদর্শিতা আর সিপিএম–এর হঠকারিতায় সিঙ্গুর, নন্দীগ্রামের ক্ষতি হয়েছে
• শিল্পপতি ভিন রাজ্যে চলে যাচ্ছেন
• চক্রান্ত চলছে, বাংলার মানুষকে রুখে দাঁড়াতে হবে
• ভাইজান আর তৃণমূলের জোট হয়েছে
• এই মাটি বহুত্ববাদের মাটি
• এই ময়দানেই দাঁড়িয়েই বামপন্থীরা বলেছিলেন, হিন্দু–মুসলমান একসঙ্গে বাস করতে পারে না
• সাত দিন আগের ব্রিগেড মমতার অনুপ্রেরণায়
• আমাদের রাজনীতি সমন্বয়ের রাজনীতি, বিভাজনের রাজনীতি নয়
• পশ্চিমবঙ্গের মাটিতে কথা বলে নিজের শক্তি প্রতিষ্ঠা করেছে বিজেপি
• আমরা প্রথম ব্রিগেড করেছিলাম ১৯৯৩ সালে। অটলজি এসেছিলেন। 
• কাতারে কাতারে মানুষ ব্রিগেডে এসেছেন। পাঁচটা নদী পেরিয়ে এসেছেন।
• তাও মমতার উপর বিশ্বাস রেখেছিলেন মানুষ।
• কারখানা, হাসপাতাল তৈরি হবে না, মানুষ জানতেন
• বাংলায় প্রকৃত পরিবর্তন আনতে আমরা এখানে উপস্থিত হয়েছি।
লকেট বলেন,
• চাষি, গরিব, ঘরে ঘরে মা দুর্গাদের মুখে হাসি দেখতে চাই। সোনার বাংলা গড়ব।
• বহিরাগত রোহিঙ্গাদের নিয়ে এসে ভোটার কার্ড দেওয়া হচ্ছে
• মোদিজি টাকা পাঠান, আর তৃণমূল সরকার কিচ্ছু করে না
• বাংলার মেয়েদের অসম্মান করছেন
• ২ মে ইভিএমে ‘‌ম্যাজিক হবে’‌
• কিচ্ছু করেনি, আর কথায় কথায় ‘‌খেলা হবে’‌
• হুগলিতে সব আসন বিজেপি পাবে
• কৃষকদের জন্যেও কিছু করেনি
• সিঙ্গুর থেকে শিল্প তাড়িয়েছে
• বাংলায় শিল্প নেই
• কামদুনি আর পার্কস্ট্রিটের ওই বাংলার মেয়ে কোথায় গেল?‌
• বাংলার মেয়ে মানুষের মন জয় করতে পারেনি
• বিজ্ঞাপনে ১৫ কোটি, আর দিদির পায়ে হাওয়াই চটি
• হোর্ডিং–এর টাকা কোত্থেকে আসে?‌
• টুপি পরে যাঁরা এসেছিলেন, তাঁরাই আবার তৃণমূলের ব্রিগেডে আসবেন
• দিদির সহযোগিতায় তৈরি হয়েছে সংযুক্ত মোর্চা। ভাইজানদের ব্রিগেড চলছে
• জয় মা দুর্গা, জয় মা কালী, খতম করো এই তৃণমূলের অত্যাচারী
• ঐতিহাসিক ব্রিগেড
অর্জুন সিং বলেন, 
• ভোটের তিন দিন আগে ব্যাঙ্কক পালাবেন মমতা ও ভাইপো
• ভাইপোর স্ত্রী বহিরাগত না?‌ 
• সরকারি কর্মীদের ডিএ দেওয়া হচ্ছে না।
• কাটমানি নেওয়া হচ্ছে।
• প্যারা–টিচারদের প্রাপ্য দিচ্ছে না রাজ্য সরকার।
• সাড়ে পাঁচ লক্ষ সরকারি পদ খালি রয়েছে। চাকরি দিচ্ছে না সরকার। 
সায়ন্তন বসুর বক্তব্য
• চাকরির নামে লুট করেছে। কেন্দ্র টাকা দিচ্ছে, দিদি নিচ্ছেন কমিশন। কেন্দ্রীয় প্রকল্পের টাকা লুট হচ্ছে।
• টিএমসি মানে টাকা মারো কোম্পানি। 
———————————————————————————————————————————————————
• ব্রিগেডের আকাশে মোদির কপ্টার। মঞ্চে মোদির নামে জয়ধ্বনি। 
• কলকাতা বিমানবন্দরে অবতরণ নরেন্দ্র মোদির। কিছুক্ষণের মধ্যেই রেসকোর্স হয়ে ব্রিগেডের মঞ্চে পৌঁছবেন মোদি।
• বিজেপিতে যোগ দিলেন মিঠুন। হাতে তুলে নিলেন বিজেপির পতাকা। তাঁকে উত্তরীয় পরালেন কৈলাস–দিলীপ।  
• পৌঁছলেন দীনেশ ত্রিবেদী
• মঞ্চে এসে পৌঁছলেন দিলীপ ঘোষ।
• ধুতি–পাঞ্জাবি পরে ব্রিগেডের সভায় ব্রিগেডে পৌঁছলেন মিঠুন। রাস্তায় কর্মী সমর্থকদের উচ্ছ্বাসে আটকে পড়েছিল তাঁর গাড়ি।
• ব্রিগেডে থাকছেন অভিনেত্রী রিমঝিম মিত্র। বলেন, ‘‌এই দিনটার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। পরিবর্তনের পরিবর্তন দরকার।’‌ প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন রিমঝিম। 
• শুধু ব্রিগেডেই থাকছে ৩ হাজার কাটআউট। ২০টি জায়ান্ট স্ক্রিন। মূল মঞ্চের উচ্চতা ১০ ফুট। দৈর্ঘ্যে ৭২ ফুট, প্রস্থে ৪৮ ফুট। থাকবে এলইডির ঝলকানি। পাশে দু’‌টি ছোট মঞ্চও তৈরি হয়েছে। লম্বায় ৪০ ফুট, চওড়ায় ২৪ ফুট। 
• সূত্রের খবর, বেলা ১১টা ২০ মিনিটে দিল্লি থেকে বিমানে রওনা হয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। কলকাতা বিমানবন্দরে পৌঁছেই কপ্টারে চেপে ১টা ৪৫ মিনিটে নামবেন রেসকোর্সের হেলিপ্যাড ময়দানে।

জনপ্রিয়

Back To Top