আজকালের প্রতিবেদন- সারা বিশ্বের বাঙালিদের নিয়ে শুরু হল প্রথম আন্তর্জাতিক বাঙালি সম্মেলন। বিধাননগরে ইস্টার্ন জোনাল কালচারাল সেন্টারে এর আয়োজক ‘‌বাংলা ওয়ার্ল্ডওয়াইড’। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু–হওয়া এই অনুষ্ঠান চলবে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত। স্বাস্থ্য, শিক্ষা, সঙ্গীত থেকে প্রযুক্তির ব্যবহার— এসব নিয়ে আলোচনা হবে এই অনুষ্ঠানে। সুযোগ থাকছে নামী চিকিৎসকদের সঙ্গে জটিল রোগ নিয়ে সরাসরি আলোচনা করার।
বাংলা ওয়ার্ল্ডওয়াইড–‌এর সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি চিত্ততোষ মুখার্জি বলেন, ‘‌এ–‌রকম একটি মঞ্চ স্থাপনের দরকার ছিল। বাংলা সংস্কৃতিকে প্রসারিত করার জন্য সারা পৃথিবীর বাঙালিদের সম্মিলিত প্রয়াসের প্রয়োজন আছে।’‌ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ডাঃ সুকুমার মুখার্জি বলেন, ‘ঐতিহ্যকে পাথেয় করেই আমরা এগিয়ে যেতে চাই।’‌ ব্রিটিশদের বঙ্গভঙ্গের সিদ্ধান্ত এবং তা নিয়ে আন্দোলন প্রসঙ্গে অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি শ্যামল সেন বলেন, ‘‌আইন যদি দেশের স্বার্থে না যায়, তবে সেখানে আন্দোলন করে তার পরিবর্তন করা যায়।’‌ মঞ্চে উপস্থিত সিস্টার নিবেদিতা ইউনিভার্সিটির আচার্য সত্যম রায়চৌধুরীর প্রশংসা করে তিনি জানিয়েছেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলা সম্মেলনের আয়োজন করেছেন সত্যম।
উদ্যোক্তাদের বাংলাদেশে এই সম্মেলন আয়োজনের অনুরোধ জানিয়ে অনুষ্ঠানের আরেক অতিথি বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মুস্তাফা জব্বর জানিয়েছেন, তঁারা এর জন্য সব রকম সহযোগিতা করবেন।‌ একতার ক্ষেত্রে ভাষার গুরুত্বের কথা উল্লেখ করে আইনজীবী অনিন্দ্য মিত্র বলেন, ‘‌সকলকে এক জায়গায় আনতে ভাষার চেয়ে বড় মাধ্যম আর কিছু হতে পারে না।’‌
বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে–‌থাকা বাঙালিদের নিজস্ব মঞ্চ এই বাংলা ওয়ার্ল্ডওয়াইড। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, শিল্প, খেলাধুলা বা রান্নাবান্না থেকে শুরু করে অন্যান্য যে–যে ক্ষেত্রে বাঙালিরা উজ্জ্বল ভাবে নিজেদের মেলে ধরেছেন, তঁাদের কর্মকাণ্ডকে তুলে ধরছে এই মঞ্চ। ২০১৯–এর ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে যার যাত্রা শুরু। এ বছর প্রথম সম্মেলনের আয়োজন করলেন উদ্যোক্তারা।  এদিন শিক্ষাবিদ পবিত্র সরকার জানিয়েছেন, আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রবাসী বাঙালি শিশুদের বাংলা ভাষা শেখাবেন তঁারা‌। ৩০টি পর্যায়ে বাংলা শেখানো হবে। ভাষার সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটুক, এটা কোনও বাঙালি চান না।
এদিন মঞ্চে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ছবিতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত করা হয় বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ আর পি সেনগুপ্ত, সঙ্গীতশিল্পী অজয় চক্রবর্তী ও বাংলাদেশের বিশিষ্ট রবীন্দ্রসঙ্গীতশিল্পী লাইসা আহমেদ লিসাকে। সংবর্ধিত হন মুস্তাফা জব্বরও। ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি অশোক গাঙ্গুলি ও সমরেশ বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রাক্তন মুখ্য সচিব অমিতকিরণ দেব, ম্যাকাউট–‌এর উপাচার্য ড.‌ সৈকত মৈত্র, বাংলাদেশের ডেপুটি হাই কমিশনার তৌফিক হাসান, বাংলাদেশের প্রাক্তন সাংসদ নুরজাহান বেগম মুক্তা ও লেখিকা সিলভিয়া পণ্ডিত। ছিলেন বিধাননগর পুরসভার চেয়ারম্যান কৃষ্ণা চক্রবর্তী এবং হিডকো–‌র চেয়ারম্যান দেবাশিস সেনও। 

বৃহস্পতিবার বিধাননগরে পূর্বাঞ্চল সংস্কৃতি কেন্দ্রে বাংলা ওয়ার্ল্ডওয়াইড আয়োজিত প্রথম আন্তর্জাতিক বাঙালি সম্মেলনে গীতি আলেখ্য ‘‌অমৃতস্য পুত্রাঃ’‌ পরিবেশন করছেন সত্যম রায়চৌধুরী, গার্গী রায়চৌধুরী, শৌনক চট্টোপাধ্যায় এবং কমলিনী মুখোপাধ্যায়। ছবি: কৌশিক সরকার

জনপ্রিয়

Back To Top