আজকাল ওয়েবডেস্ক: শুধু পর্যটকদের ছাড়া নেই। এছাড়া ভারতে যাতায়াতের জন্য বাংলাদেশিরা সব ধরনের ভিসার জন্যই আবেদন করতে পারবেন। বুধবার বাংলাদেশে ভারতের হাই কমিশন এখবর জানাল। চিকিৎসার জন্য সফরকারীদের কথা মাথায় রেখেই মূলত এই পদক্ষেপ করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে টুইট পোস্টে। গত ১৭ তারিখই বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ঘোষণা করে দিয়েছিলেন, ২৮ তারিখ থেকে ভারত–বাংলাদেশের মধ্যে বিমান পরিষেবা চালু হয়ে যাবে। সেই মতো বুধবার থেকে শুরু হল পরিষেবা। বাংলাদেশের তিনটি বিমান কোম্পানি— বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, ইউএস–বাংলা এয়ারলাইন্স এবং নোভো এয়ার আপাতত প্রতি সপ্তাহে ২৮টি করে উড়ান চালাবে। অন্যদিকে ভারতের পক্ষে এয়ার ইন্ডিয়া, ভিস্তারা, ইন্ডিগো, স্পাইসজেট এবং গো এয়ার বিমান কোম্পানি প্রতি সপ্তাহে ২৮টি করেই উড়ান চালাবে। বাংলাদেশের অসামরিক বিমান পরিবহন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিমান আপাতত ঢাকা–কলকাতা–ঢাকা এবং ঢাকা–দিল্লি–ঢাকা রুটে উড়ান চালাবে। নোভো এয়ার ঢাকা–কলকাতা রুটে উড়ান চালাবে। ইউএস–বাংলা  ঢাকা–চেন্নাই রুটে উড়ান চালাবে। পাঁচটি ভারতীয় বিমান কোম্পানি যথাক্রমে ঢাকা–দিল্লি, ঢাকা–কলকাতা, ঢাকা–চেন্নাই এবং ঢাকা–মুম্বই রুটে চলবে।
ছবি:‌ এএনআই 

জনপ্রিয়

Back To Top