আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ লোকসভা নির্বাচন শুরু হওয়ার আগেই প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রত্যাবর্তন চেয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। কিন্তু নির্বাচন শেষ হওয়ার পর ফলাফল ঘোষণার ঠিক আগেই ওয়াঘা সীমান্তের ওপারের একাধিক টেলিভিশন চ্যানেলে সম্প্রচারিত সাধারণ মানুষের মত, নরেন্দ্র মোদির ফিরে আসার সম্ভাবনা কম।
আগেই ইমরান একটি টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি জিতে ক্ষমতায় ফিরলে তবেই ভারত–পাক শান্তি আলোচনার সম্ভাবনা বাড়বে। দক্ষিণপন্থী দল বিজেপি ক্ষমতায় ফিরলে কাশ্মীর সমস্যা নিয়েও সমাধান সূত্রে পৌঁছানো সম্ভব হবে।
২৩ মে এই দেশের সাধারণ নির্বাচনের ফল ঘোষণা। বুথ ফেরত সমীক্ষায় বিজেপিকে এগিয়ে রাখা হয়েছে। সীমান্ত নিয়ে সর্বদা টানটান উত্তেজনায় থাকা পাকিস্তানের জনগণও ভারতের নির্বাচনী ফলাফলে যথেষ্ট মনোনিবেশ করেছেন। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে সংবাদমাধ্যমেও উঠে আসছে পাকিস্তানিদের মতামত। পাকিস্তানের একটি টেলিভিশন চ্যানেলে শাহি আলম নামে লাহোরের এক বাসিন্দা বলেন, ‘‌মোদী কখনও ক্ষমতায় ফিরে আসবেন না। তিনি পাকিস্তানে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালিয়েছিলেন।’‌
আজিজ নামের এক নাগরিক বলেন, ‘‌মোদি ফের সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসছেন কি না, সে বিষয়ে সংশয় রয়েছে। আমি মনে করি, ভোটের ফল দেখে তিনি যথেষ্ট হতাশ হবেন।’‌
 ‌

জনপ্রিয়

Back To Top