আজকাল ওয়েবডেস্ক: সময় পাল্টালেও প্রাইভেসি পলিসিতে কোনও বদল করল না হোয়াটসঅ্যাপ। ৮ ফেব্রুয়ারির জায়গায় সমস্যসীমা দেওয়া হল ১৫ মে। এর মধ্যে প্রাইভেসি পলিসিতে না হলে অ্যাপ ছাড়তে হবে ব্যবহারকারীদের। 
নতুন বছরের গোড়া থেকে সংবাদের শিরোনামে ছিল বিশ্বের সবথেকে বেশি ব্যবহৃত বার্তাপ্রেরক অ্যাপটি। হোয়াটসঅ্যাপে শেয়ার করা যে কোনও বার্তা, ছবি বা ভিডিও তাদের মালিক সংস্থা ফেসবুকের কাছে চলে যাবে, নয়া প্রাইভেসি পলিসির মোদ্দা কথা ছিল এটাই। এই নিয়ে প্রবল বিতর্ক হয় দুনিয়াজুড়ে। উল্লেখযোগ্য পরিমাণ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারী ‘সিগনাল’ সহ অন্যান্য অ্যাপ ব্যবহার করতে শুরু করেন। ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামে ফেসবুকের মালিকানাধীন সংস্থাটি। 
বার্তা দেওয়া হয় যে, ব্যক্তিগত চ্যাট গোপনই থাকবে। শুধুমাত্র ব্যবসা সংক্রান্ত বার্তা ফেসবুক এবং হোয়াটসঅ্যাপের সঙ্গে জড়িত অন্যান্য ওয়েবসাইটে শেয়ার করা হবে। কিন্তু এতে চিঁড়ে ভেজেনি। অ্যাপটি ব্যবহার করা নিয়ে দ্বিধায় পড়ে মানুষ। এলন মাস্কের মতো ধনকুবের সিগনালের হয়ে কথা বলায় বিষয়টি আরও বেশি করে পালে বাতাস পেয়েছে। কিন্তু সবকিছুর পরেও অবস্থান থেকে সরে এল না হোয়াটসঅ্যাপ। সময়টাই পেছানো হল শুধু।     
 

জনপ্রিয়

Back To Top