আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ চীনের নৌসেনার মহড়া চলার মাঝেই দক্ষিণ চীন সাগরে দু’টি যুদ্ধবিমানবাহী জাহাজ পাঠাল আমেরিকা। এই ঘটনায় দক্ষিণ চীন সাগর জুড়ে আন্তর্জাতিক রাজনীতি ক্রমেই উত্তপ্ত হচ্ছে। ইউএসএস রোনাল্ড রেগান ও ইউএসএস নিমিৎস নামে দুটি মার্কিন এয়ারক্রাফট ক্যারিয়ার জাহাজ মোতায়েন থাকবে বলে খবর সংবাদসংস্থা রয়টার্স সূত্রে। পাশাপাশি আরও চারটে যুদ্ধজাহাজ পাঠিয়ে সাগরে সামরিক অনুশীলন চালাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও। মার্কিন সেনার এক শীর্ষ আধিকারিক জানান, ‘বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এবং এশিয়ায় আমাদের বন্ধু রাষ্ট্রগুলোকে পাশে থাকার বার্তা দিতেই আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। চীনের সামরিক অনুশীলনের পাল্টা দিতে এই পদক্ষেপ নেয়নি আমেরিকা।’‌ গত সপ্তাহেই চীন জানিয়েছিল, ১ জুলাই থেকে শুরু করে টানা পাঁচদিন দক্ষিণ চীন সাগরের পরিসেল দ্বীপের কাছে সামরিক মহড়া চালাবে তারা। এই দ্বীপ নিয়ে চীন ও ভিয়েতনামের মধ্যে অনেকদিনের দ্বন্দ্ব। তবে শুধু ভিয়েতনাম নয়, ব্রুনেই, মালয়েশিয়া, ফিলিপিন্স, তাইওয়ানের মতো দেশগুলিও তাদের কর্তৃত্ব দাবি করে। চীন একাই ওই সাগরের ৯০% নিজেদের এলাকা বলে বরাবর দাবি করে এসেছে। এই সাগরপথেই তিন ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারের বাণিজ্য হয় প্রতিবছর। দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের সামরিক অনুশীলনের বিরোধিতা প্রথম থেকেই করে এসেছে ভিয়েতনাম, ফিলিপিন্স ও আমেরিকা।

জনপ্রিয়

Back To Top