আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ করোনা সংক্রমণ রুখতে গোটা বিশ্বেই কার্যত লকডাউন। আর লকডাউনের জেরে এখন প্রায় সমস্ত কর্পোরেট সংস্থাই কর্মীদের বাড়ি থেকে কাজ করার অনুমতি দিয়েছে। এর ফলে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’–এ অভ্যস্ত হয়ে উঠেছেন অনেকেই। কিন্তু লকডাউন উঠলেই খুলবে অফিস। আগের নিয়মেই যেতে হবে। তবে এরই পুরো ভিন্ন পথে হাঁটছে মার্কিন সংস্থা টুইটার। লকডাউন উঠে গেলেও আর অফিস যাওয়ার প্রয়োজন নেই। চাইলে আজীবন বাড়িতে বসেই কাজ করতে পারেন কর্মীরা। মঙ্গলবার এমনটাই ঘোষণা করেছে টুইটার কর্তৃপক্ষ। একাধিক সরকারি–বেসরকারি সংস্থা, কর্পোরেট সংস্থার মতোই টুইটারের কর্মীরাও লকডাউনের জেরে বাড়ি থেকেই কাজের চাপ সামলাচ্ছিলেন। আগামী সেপ্টেম্বরের আগে অফিসে আসার যে কোনও সম্ভাবনা নেই, তা আগেই কর্মীদের জানিয়ে দিয়েছিল সংস্থা। এ বার পাকাপাকি ভাবে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ ব্যবস্থাকেই চালু করে দিল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু কেন এমন সিদ্ধান্ত? টুইটারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, লকডাউনে গত কয়েক মাসে সংস্থার কর্মীরা এটা প্রমাণ করে দিয়েছেন যে, বাড়ি থেকেও সমান ভাবে কাজ করা সম্ভব। তাই বাড়ি থেকেই যদি সুষ্ঠুভাবে অফিসের সমস্ত কাজ করা যায়, সে ক্ষেত্রে অফিসে আসার প্রয়োজন কোথায়! তাই পাকাপাকি ভাবে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ ব্যবস্থাই চালু করে দেওয়া হল। সংস্থা জানিয়েছে, অফিস কবে খুলবে সে বিষয়ে এখনও কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। অফিস খুললেও, অফিসের পরিবেশ আগের অবস্থায় ফিরতে বা স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে অনেকটা সময় লাগবে। তাই কর্মীরা অফিসে এসে কাজে যোগ দিতে চাইলে, তাঁদের নিজেদের দায়িত্বেই আসতে হবে।

জনপ্রিয়

Back To Top