আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যু ঘিরে উত্তপ্ত আমেরিকা। প্রশাসনের বিরুদ্ধে বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ তুলছেন কৃষ্ণাঙ্গরা। প্রতিবাদ, বিক্ষোভ, মিছিল চলছেই। সেই সুবাদে চলছে অবাধ লুঠপাট। আইনশৃঙ্খলার ক্রমেই অবনতি হচ্ছে। স্থানীয় প্রশাসন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারলে সেনা নামানোর হুঁশিয়ারি দিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। 
সোমবার সন্ধ্যায় (‌ভারতীয় সময় মঙ্গলবার সকালে)‌ হোয়াইট হাউসে বসে ডোনাল্ড ট্রাম্প বললেন, মেয়র এবং গভর্নরদের কড়া হাতে পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে। আইনশৃঙ্খলা ফেরাতে হবে। এখানেই থামেননি ট্রাম্প। স্বকীয় ভঙ্গিতে হুঁশিয়ারি দিলেন, ‘‌নাগরিকদের জীবন এবং সম্পত্তি রক্ষার জন্য কোনও শহর বা স্টেটের প্রশাসন যদি কড় পদক্ষেপ না করেন, তবে আমি মার্কিন সেনা নামাব। তাদের হয়ে আমিই সমস্যার সমাধান করে দেব।’‌
এর আগে স্টেট গভর্নরদের কড়া হাতে বিক্ষোভ দমনের নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট। মিনিয়াপোলিস পুলিশের হাতে ৪৬ বছরের জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর পর ক্ষোভের আগুন জ্বলে ওঠে আমেরিকায়। ৭৫টি শহরে পথে নামে লাখ লাখ মানুষ। ফ্লয়েডের মৃত্যুর বিচার চেয়ে মিছিল করেন তাঁরা। স্লোগান দেন। ওয়াশিংটন ডিসি–র নাগরিকদের ট্রাম্পের হুঁশিয়ারি, বিক্ষোভ না থামালে তিনি সশস্ত্র সেনা নামাবেন। 
ট্রাম্প এও আশ্বাস দিয়েছেন, যে ফ্লয়েদের মৃত্যুর বিচার হবে। তাঁর কথায়, ‘‌বিক্ষোভের ফল ভুগছেন এই গরিব সম্প্রদায়ের কিছু শান্তিকামী মানুষ। তাঁদের প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমি তাঁদের রক্ষার জন্য লড়াই করব। আমি আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করারও সর্বোচ্চ দায়িত্বে। শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদের পাশে রয়েছি’‌।   
 

জনপ্রিয়

Back To Top