আজকাল ওয়েবডে‌স্ক: হুমকির চাপেই সুর বদলে ফেললেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় শনিবার তিনি বলে দিয়েছেন, আমেরিকায় ব্যবসা চালিয়ে যাওয়ার জন্য টিকটকের সঙ্গে যে বাণিজ্যিক চুক্তি হয়েছে, সেটাকে তিনি সমর্থন করছেন। গত মাসেই চীনা এই অ্যাপটিকে দেশে নিষিদ্ধ ঘোষণার হুমকি দিয়েছিলেন ট্রাম্প। টিকটকের মালিক সংস্থা বাইটডান্সের সঙ্গে ওরাকল্‌ এবং ওয়ালমার্টের যে বাণিজ্যিক চুক্তি হয়েছে তাতে নতুন কোম্পানি তৈরি হবে। টিকটক গ্লোবাল নামে ওই কোম্পানি আমেরিকায় ব্যবসা করবে। নতুন কোম্পানির সদর দপ্তর হবে টেক্সাসে।
হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে শনিবার ট্রাম্প বলেন, ‘‌ওই চুক্তিকে আমি আমার আশির্বাদ দিয়েছি। এটার সঙ্গে চীনের কোনও যোগাযোগ থাকবে না এবং এটা পুরোপুরি নিরাপদ। এটাই চুক্তির অংশ। আমি চুক্তির বিষয়ে অনুমোদন দিয়েছি। এটা আমেরিকার পক্ষে দারুণ চুক্তি।’‌ আমেরিকার একটি শিক্ষামূলক অনুষ্ঠানের জন্য পাঁচ বিলিয়ন মার্কিন ডলার অনুদান দেওয়া হবে এই চুক্তিতে।
পরে মার্কিন রাজস্ব দপ্তর থেকে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, আমেরিকার যাবতীয় তথ্যের গোপনীয়তা এবং প্রযুক্তির নিরাপত্তার দায়িত্ব থাকবে ওরাকল্‌–এর হাতে। মার্কিন বাণিজ্য দপ্তর শনিবার জানিয়ে দেয়, প্রেসিডেন্টের নতুন ঘোষণার কথা মাথায় রেখে রবিবার থেকে শুরু করে আগামী ২৭ তারিখ পর্যন্ত নতুন টিকটক ডাউনলোডিং তারা বন্ধ রাখবে। তার কারণ ওই বাণিজ্যিক চুক্তি সম্পন্ন হতে এক সপ্তাহ লাগবে। ততদিন পর্যন্ত টিকটক বন্ধ থাকবে আমেরিকায়। নতুন চুক্তি অনুযায়ী, মার্কিন শেয়ারহোল্ডারদের ৫৩ শতাংশ এবং চীনা শেয়ারহোল্ডারদের ৩৬ শতাংশ নিয়ন্ত্রণ থাকছে টিকটকে। ওরাকল্‌ বলেছে, টিকটক গ্লোবালে তাদের ১২.‌৫ শতাংশ শেয়ার থাকছে।
শুক্রবার সকালেই ট্রাম্প টিকটক নিষিদ্ধ করা ঘোষণা করেন আমেরিকায়। তারপর রাতেই ওয়াশিংটনের একটি আদালতের দ্বারস্থ হয়ে টিকটক অভিযোগ করে, সম্পূর্ণ রাজনৈতিক স্বার্থে এধরনের কাজ করেছেন ট্রাম্প। তারপর শনিবার বেজিং ওয়াশিংটনকে প্রচ্ছন্ন হুমকির সুরে বলে, আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের নিয়ম মেনে টিকটককে আমেরিকায় ব্যবসা করতে না দিলে, তারা পদক্ষেপ করবে নিজেদের দেশের কোম্পানির স্বার্থ রক্ষার্থে। তারপরই সুর নরম করলেন ট্রাম্প।
ছবি:‌ এএনআই                  ‌‌‌             ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top