আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌চীন–মার্কিন বাণিজ্যিক সম্পর্কেও ইতি?‌ সেই জল্পনাই উসকে দিলেন খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। করোনা আবহে চীনের সঙ্গে আমেরিকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ভীষণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বছরের শুরুতেই বাণিজ্য যুদ্ধে নেমেছিল দু’‌দেশ। তার জেরে বিশ্ব অর্থনীতিতে বড় প্রভাব পড়েছিল। প্রভাব পড়েছিল দু’‌দেশের অর্থনীতিতেই। বাধ্য হয়েই বিশেষ বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল চীন ও আমেরিকা। চীনা পণ্যের ওপর থেকে শুল্কের হার কমিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ট্রাম্প প্রশাসন। পরিবর্তে বেশ করে মার্কিন পণ্যও কিনতে সম্মতি জানায় চীন। বছরের শেষের দিকে দু’‌দেশের মধ্যে আরও চুক্তি হওয়ার কথা ছিল। যা ভেস্তে গেল চীন থেকে গোটা বিশ্বে করোনা ছড়িয়ে পড়তেই। শুরু থেকেই আমেরিকার অভিযোগ, বিশ্বে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে ব্যবস্থা নেয়নি চীন। আরও বলা হয়, ইউহানের ল্যাবেই কৃত্রিমভাবে করোনা তৈরি করা হয়েছে। করোনা সংক্রমণের জন্য চীনকে দায়ী করার পাশাপাশি হংকংবাসীর ওপর জাতীয় নিরাপত্তা আইন চাপিয়ে দেওয়া থেকে শুরু করে মার্কিন সাংবাদিকদের ওপর নজরদারি, তিব্বত–হিমালয়–দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের আগ্রাসী নীতি– এই সব কিছুর জেরেই ক্রমে খারাপ হয়েছে দু’‌দেশের সম্পর্ক। ট্রাম্প এবার বলেই দিলেন, দু’‌দেশের মধ্যেকার বাণিজ্য নিয়ে তিনি এই মুহূর্তে কিছুই ভাবছেন না।

জনপ্রিয়

Back To Top