আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ এবার মার্কিন কংগ্রেসে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের চারজন মহিলা সদস্যাকে কটূক্তি করলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় রবিবার ট্রাম্প ডেমোক্র‌্যাট দলের ওই সদস্যার প্রতি টুইট করে বলেছেন ‘‌নিজেদের দেশে ফিরে গিয়ে সেখানকার ভেঙে পড়া, অপরাধী অধ্যুষিত রাজনীতিটা আগে সামলান।’‌ ওই চারজন হলেন ম্যাসাচুসেটস্‌–এর আয়ানা প্রেসলি, মিশিগানের রশিদা তায়িব, নিউ ইয়র্কের অ্যালেক্সান্দ্রিয়া ওকাশিও–কর্তেজ  এবং মিনেসোটার ইলহান ওমর। ডেমোক্র‌্যাট দলের নতুন, উদারপন্থী সদস্যা বলে পরিচিত এই চারজনই প্রকৃতপক্ষে মার্কিনী নন। বিভিন্ন দেশের বংশোদ্ভূত।
টুইটে ট্রাম্পের কটাক্ষ, সব থেকে খারাপ, দুর্নীতিগ্রস্ত, ভেঙে পড়া সরকারের দেশ থেকে আসা নেত্রীরা পৃথিবীর সব চেয়ে শক্তিশালী দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের সরকার চালানোর পরামর্শ দিচ্ছেন। ওই ডেমোক্র‌্যাটদের ট্রাম্পের পরামর্শ, তাঁরা নিজেদের দেশে ফিরে গিয়ে আগে সেখানের পরিস্থিতি ঠিক করে তবে আমেরিকায় ফিরে তাঁদের পরামর্শ দেন। ট্রাম্প বলেছেন, ‘‌আমি নিশ্চিত ন্যান্সি পেলোসিও খুশিই হবেন এতে আর আপনাদের যাত্রার দ্রুত ব্যবস্থা করে দেবেন।‌’‌
মার্কিন কংগ্রেসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির সঙ্গে আনায়া, রশিদাদের মতানৈক্যের কারণে সম্প্রতি ডেমোক্র‌্যাট দলে ফাটল ধরেছিল। কিন্তু ট্রাম্পের ওই টুইটের পরই তারা ফের সংগঠিত হয়ে দলীয় সদস্যাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। পেলোসি তৎক্ষণাৎ টুইটে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেছেন, দেশের প্রেসিডেন্টের ওই মন্তব্য নারী এবং বর্ণবিদ্বেষী। আমেরিকায় বিভিন্ন ভাষাভাষী এবং বিভিন্ন ধর্মের মানুষদের বসবাসের কথা উল্লেখ করে ন্যান্সি বলেছেন, ‘‌আমাদের ভিন্নতাই আমাদের শক্তি আর আমাদের একতা আমাদের শক্তি।’
চার ডেমোক্র‌্যাট সদস্যাও ট্রাম্পের মন্তব্যের বিরোধিতা করে বলেছেন, তাঁরা কংগ্রেসের সদস্য হিসেবে আমেরিকার জন্যই শপথ নিয়েছেন। ট্রাম্প দ্রুত হোয়াইট হাউস থেকে উৎখাত হবেন বলে কটাক্ষ করে তাঁদের মন্তব্য, তাঁরা তাঁদের নিজেদের দেশ আমেরিকার দুর্নীতির বিরুদ্ধেই লড়ছেন। 
ট্রাম্পের মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন তাঁর দল রিপাবলিকান পার্টির সদস্য রুবেন গ্যালেগো ডি–আরিজও। তিনি বলেছেন, আমেরিকাতে জন্মালেও এবং মার্কিন নৌসেনায় কাজ করলেও তাঁকে বারবার মেক্সিকোয় ফিরে যেতে বলা হয়েছে, কারণ তাঁর পরিবার সেখানকার মানু্্ষ। এছাড়া অন্যান্য রিপাবলিকান সদস্যরাও প্রেসিডেন্টের এই মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন। 
প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ট্রাম্প ঘোষণা করেছেন, দেশজুড়ে যে সব শরণার্থী পরিবার তাদের নিজেদের দেশ ফিরে যাওয়ার সরকারি নির্দেশ পেয়ে গিয়েছে, তাদের একত্রিত করা শুরু করেছেন মার্কিন অভিবাসন এবং শুল্ক দপ্তরের অফিসাররা। 
ছবি:‌ ওয়াশিংটন পোস্ট     

জনপ্রিয়

Back To Top