‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ভারতের দিকে সৌজন্যের হাত বাড়াল পাকিস্তান। ভারতের শিখ তীর্থযাত্রীদের জন্য কর্তারপুর সীমান্ত খুলে দেবে পাক প্রশাসন। এমনটাই জানানো হয়েছে পাকিস্তানের তরফ থেকে। তার ফলে গুরু নানকের ৫৫০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের নারোয়াল জেলাতে শিখ তীর্থতে যেতে সুবিধা হবে পুণ্যার্থীদের। ওই পবিত্র স্থানেই জীবনের শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছিলেন গুরু নানক। তাই এই স্থানকে অত্যন্ত পবিত্র বলে মনে করেন শিখরা। পাকিস্তানের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন নভজ্যোৎ সিং সিধু। পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সিধু। নভেম্বরে শুরু হবে এই তীর্থযাত্রা।
সিধু বলেছেন, ‘‌এই সিদ্ধান্তে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের উন্নতি হবে। শিখদের দীর্ঘদিনের ইচ্ছেপূরণ হবে। বন্ধু ইমরানকে ধন্যবাদ জানাই। কারণ তিনি ধর্ম ও রাজনীতিকে আলাদা করতে পেরেছেন। অনুমতি পেলে আমি নিজে প্রথম দফার তীর্থযাত্রীদের সঙ্গে যেতে চাইব।’‌ মনে করা হচ্ছে, সব মিলিয়ে আট হাজারের বেশি তীর্থযাত্রী এই যাত্রায় অংশগ্রহণ করার জন্য আবেদন জানাতে পারেন। তবে কতজনকে অনুমতি দেওয়া হবে, বা কীসের ভিত্তিতে অনুমোদন দেওয়া হবে, সেই বিষয়ে এখনও দুই দেশের কারও তরফেই কোনও মন্তব্য করা হয়নি। তবে সিধুর মন্তব্য, ‘‌এই পবিত্র যাত্রায় যাওয়ার জন্য মনে হয় না কোনও দেশের সরকারই কাউকে আটকাবে। কারণ এটাতে যে শুধু শিখ পুণ্যার্থীদের মনোবাসনা পূর্ণ হবে, তাই নয়, দু’‌দেশের পারস্পরিক সম্পর্কেরও উন্নতি হবে।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top