আজকাল ওয়েবডেস্ক: ৮ জানুয়ারি থেকে প্রাইভেসি পলিসিতে বদল আনার পর থেকেই হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের একাংশের মধ্যে দেখা দিয়েছে অসন্তোষ। আর রক্ষা হবে না গোপনীয়তা, এই ভয়ে শুরু হয়েছে টুইটার অ্যাকাউন্ট ডিলিট। এমতাবস্থায় বিকল্প মেসিজিং অ্যাপ হিসেবে উঠে এসেছে ‘সিগন্যাল’। ভারতে ইতিমধ্যেই কয়েক লক্ষ মানুষ নতুন অ্যাপটি ব্যবহার শুরু করেছেন। জানেন কি, সিগন্যালের প্রতিষ্ঠাতাই ছিলেন হোয়াটসঅ্যাপের সহ প্রতিষ্ঠাতা?
১৯৭২ সালে আমেরিকার মিশিগানে জন্ম নেন ব্রায়ান অ্যাকশন। ১৯৯৪-তে স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কম্পিউটার সায়েন্স নিয়ে স্নাতক হন তিনি। বর্তমানে সিগন্যালের এগজিকিউটিভ চেয়ারম্যান অ্যাকশন ২০১৮ সালে মক্সি মার্লিনস্পাইকের সঙ্গে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন সিগন্যাল অ্যাপের। এই ব্রায়ানই জান বোকুমের সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপও প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১৪ সালে ফেসবুকের সিইও মার্ক জুকারবার্গকে ১৯ বিলিয়ন ডলারে হোয়াটসঅ্যাপ বিক্রি করে দেন। এরপর হোয়াটসঅ্যাপের মানিটাইজেশন নিয়ে ফেসবুকের সঙ্গে বনিবনা না হলে হোয়াটসঅ্যাপ ছেড়ে বেরিয়ে আসেন অ্যাকশন।
এর আগে ইয়াহু-তে কাজ করার সময় জান বোকুমের সঙ্গে পরিচয় হয় অ্যাকশনের। প্রোডাক্ট পরীক্ষক হিসেবে অ্যাপল এবং অ্যাডোবেও কাজ করেছেন তিনি। হোয়াটসঅ্যাপ শুরু করার আগে টুইটার এবং ফেসবুকের মতো বড় সংস্থার চাকরির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন অ্যাকশন। অবশেষে এখন সিগন্যালের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন। তিনি জানিয়েছেন, সিগন্যাল সম্পূর্ণভাবে অলাভজনক সংস্থা। এর উন্নতির অর্থ আসে অনুদানের মাধ্যমে। তিনি এও জানিয়েছেন, কোনও বড় টেক-সংস্থার সঙ্গে গাঁটছড়া নেই সিগন্যালের।       
 

জনপ্রিয়

Back To Top