আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বেপাত্তা থাকার পর অবশেষে খোঁজ মিলল দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিওলের মেয়র পার্ক উন–সুনের। তবে জীবিত নয়, মৃত। শহরের উত্তর অংশের একটি জায়গা থেকে তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এমনটাই জানা গিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার একটি স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে। এর আগে বৃহস্পতিবার থেকে খোঁজ মিলছিল না তাঁর। স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটা নাগাদ মেয়রের নিরুদ্দেশ হয়ে যাওয়ার কথা পুলিশকে জানান পার্ক উন–সুনের মেয়ে। বলেন, তাঁর বাবা উইলের মতো একটি মেসেজ রেখে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেছেন। তিন–চার ঘণ্টা তাঁর খোঁজ নেই। এরপরই তৎপর হয় পুলিশ প্রশাসন। সামনে আসে গোটা ব্যাপারটা। শহরজুড়ে শুরু হয় চিরুণি তল্লাশি। এরপর দীর্ঘ সাত–আট ঘণ্টা পর শেষপর্যন্ত তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার হল।  
৬৪ বছরের পার্ক উন–সুন ২০১১ সাল থেকে সিওলের মেয়র। পরবর্তীতে ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের নির্বাচনেও বিপুল মার্জিনে জয়লাভ করেন। ২০২২ সালে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে অন্যদের তুলনায় অনেকটাই এগিয়ে ছিলেন তিনি। বিচক্ষণ রাজনীতিবিদ হিসেবে পরিচিত পার্ক দক্ষিণ কোরিয়ার সাধারণ মানু্ষের মধ্যে অনেকটাই জনপ্রিয়। পারিবারিক রাজনীতির কোনও ইতিহাস না থাকলেও একজন সফল নেতা হতে পেরেছেন তিনি। এহেন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের হঠাৎ করে নিরুদ্দেশ হয়ে যাওয়া, স্বাভাবিকভাবেই মানুষের মনেও প্রশ্ন তুলে দিয়েছিল। কোথায় মেয়র?‌ আদৌ বেঁচে আছেন তো?‌ এই প্রশ্নও উঠছিল। শেষপর্যন্ত সেই আশঙ্কাই সত্যি হল। কিন্তু আত্মহত্যা না খুন? খুন হলেও কারা এর পিছনে দায়ী?‌ রাজনৈতিক প্রতিহিংসা?‌ নাকি উত্তর কোরিয়ার হাত ‌রয়েছে এই ঘটনার পিছনে?‌ পুলিশ আধিকারিকরা এখন সেই প্রশ্নেরই উত্তর খোঁজার চেষ্টা করছেন।‌

জনপ্রিয়

Back To Top