আজকাল ওয়েবডেস্ক: সুদূর চেক প্রজাতন্ত্রে দাঁড়িয়ে বাংলা ভাষা যে জনপ্রিয় তা চাক্ষুষ করলেন ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। কারণ ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সামনে বাংলায় বক্তব্য রাখলেন সেদেশের চার্লস বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী। তিনি বলেন, বাংলা ভাষা ভালবাসেন। পড়াশোনা করেন বাংলাতেই। চেক প্রজাতন্ত্রে বাংলা ভাষার এমন কদর দেখে আপ্লুত রাষ্ট্রপতি। সেই ছাত্রীর বাংলায় দেওয়া ভাষণ টুইটার এবং ফেসবুকে শেয়ার করলেন তিনি। যা এখন ভাইরাল।
গত বৃহস্পতিবার চেক প্রজাতন্ত্র সফরে যান রাষ্ট্রপতি। সেদেশের চার্লস বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সেখানেই তাঁর সামনে বাংলায় বক্তব্য রাখেন এক ছাত্রী। ওই ছাত্রী বলেন, ‘‌আমি চার্লস বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা ও সংস্কৃত ভাষা নিয়ে পড়াশোনা করি। একসময় বাংলা সাহিত্যের প্রেমে পড়ে বাংলা ভাষা শিখতে শুরু করেছিলাম। বাংলা সাহিত্য আমাদের দেশে ভীষণ জনপ্রিয়। প্রথম অবাঙালি যিনি রবীন্দ্রনাথের লেখা বাংলা থেকে অনুবাদ করেন। তিনি হলেন চার্লস বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড: ভিনসেন্ট লেসনি। তাঁর গীতাঞ্জলি কবিতা ও একটি ছোট গল্পের অনুবাদ বেরিয়েছে ১৯১৪ সালে। রবীন্দ্রনাথ ও ভিনসেন্টের সম্পর্ক শ্রদ্ধা ও মিত্রতাপূর্ণ। দু’‌জনের এই সম্পর্ককে পূর্ব–পশ্চিমের মিলনও বলা যায়। চেক পাঠকরা আজকাল নিজস্ব মাতৃভাষায় বাংলা বই পড়তে পারে। রবীন্দ্রনাথ ও শক্তির কবিতা, আশাপূর্ণা, সুনীলের ছোট গল্প এবং বিভূতিভূষণ ও শরৎচন্দ্রের উপন্যাস তারা পড়ে।’‌ 
রাষ্ট্রপতি জানান, ওই ছাত্রীর নাম জ়ুজানা স্পাইকোভা। তিনি চার্লস বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্ডোলজির ছাত্রী। চার্লস বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে বাংলা ভাষা ও বাঙালির সম্পর্ক আজকের নয়। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাষণ দিয়েছিলেন। সেই ১৮৫০ সাল থেকে এখানে সংস্কৃত পড়ানো হয়।

জনপ্রিয়

Back To Top