আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে নিতে হতে পারে তৃতীয় ডোজও। শুধু তাই নয়, প্রত্যেক বছরেও একটি করে ডোজ নিতে হতে পারে, জানাল ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা ফাইজার।
বৃহস্পতিবার একটি সাক্ষাৎকারে ফাইজার কর্ণধার অ্যালবার্ট বুরলা বলেন, ‘‌শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ধরে রাখতে দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার ৬ থেকে ১২ মাসের মধ্যে তৃতীয় ডোজ নেওয়াও জরুরি হয়ে পড়ছে। তাছাড়াও পরিস্থিতি যে দিকে এগোচ্ছে, তাতে বছর বছরেও একটি করে ডোজ নিতে হতে পারে। কিন্তু এই গোটা বিষয়টি নিয়ে আমাদের আরও নিশ্চিত হতে হবে।  
করোনা প্রতিষেধক শরীরে কতদিন রোধ প্রতিরোধ ক্ষমতা ধরে রাখতে পারে, তা নিয়ে এখনও পর্যন্ত বিশদে কোনও গবেষণা সামনে আসেনি। সম্প্রতি ফাইজার জানিয়েছে, তাদের টিকা ৯১ শতাংশ কার্যকরী। যাঁরা গুরুতরভাবে আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁদের ক্ষেত্রে ৯৫% কাজ করবে ওই টিকা এবং দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর অন্তত ৬ মাস শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ধরে রাখবে তা, জানাচ্ছে ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা। যদিও সেই সংক্রান্ত এখনও কোনও রিপোর্ট সামনে আসেনি বলেই জানা গেছে। 
নব নির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের অতিমারী নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত দলের প্রধান ডেভিড কেসলার বলেন, করোনাভাইরাসকে ঠেকাতে গেলে প্রত্যেক মার্কিনিকে ‘‌বুস্টার’ ডোজ দেওয়া জরুরি। ‌

Back To Top