আজকাল ওয়েবডেস্ক: রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদে গত ১৯৬৫–র নভেম্বরের পর থেকে ভারত–পাকিস্তানের ইস্যু নিয়ে আর কোনও আনুষ্ঠানিক আলোচনা হয়নি। তাই আন্তর্জাতিক স্তরে কাশ্মীর ইস্যুকে আলোচনার জন্য তুলে ধরার পাকিস্তানের যাবতীয় চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। এমনটাই মনে করছেন রাষ্ট্রপুঞ্জে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টিএস তিরুমূর্তি। এমনকি, সম্প্রতি নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যদের নিয়ে যে ঘরোয়া রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়েছিল যেখানে চীন ছাড়া বাকি রাষ্ট্রগুলি যোগ দিয়েছিল, সেখানেও প্রতিটি দেশই স্থির করেছিল যে কাশ্মীর, দিল্লি এবং ইসলামাবাদের দ্বিপাক্ষিক বিষয়, বলছেন তিরুমূর্তি। ‘‌সেকারণেই পাকিস্তানের চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। আমি আপনাদের বলতে চাই জম্মু–কাশ্মীরের বিষয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জকে জড়িয়ে দেওয়ার পাকিস্তানি চেষ্টা বিফল হয়েছে এবং ভারত তার কড়াভাবে আপত্তি জানিয়েছে। আমরা ভবিষ্যতেও এর প্রতিবাদ জানিয়ে যাব’‌, মন্তব্য তাঁর। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছর জম্মু–কাশ্মীরের উপর থেকে ৩৭০ ধারা ভারত বিলোপ করার পর থেকেই তাতে আপত্তি জানিয়ে আসছিল পাকিস্তান। এবং তারপর থেকেই রাষ্ট্রপুঞ্জের বৈঠক সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক আলোচনায় বারবার কাশ্মীর ইস্যু তুলে পাকিস্তান সবাইকে বোঝানোর চেষ্টা করেছে ৩৭০ ধারা বিলোপ করা উচিত হয়নি ভারতের। অভিযোগ করেছে, কাশ্মীরীদের উপর অত্যাচার করছে ভারতীয় সেনা। গত জুলাইয়ে পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশিও রাষ্ট্রপুঞ্জের ইকোএসওসি বৈঠকে নিজের ভাষণের সময় জম্মু–কাশ্মীর ইস্যু তুলেছিলেন।  গত বছরও রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব ১৯৭২ সালের শিমলা চুক্তির প্রসঙ্গ টেনে কাশ্মীর ইস্যুকে ভারত–পাকিস্তানের নিজস্ব বিষয় বলেই মন্তব্য করেছিলেন। তাই পাকিস্তান রাষ্ট্রপুঞ্জে বারবার কাশ্মীর ইস্যু আলোচনার খাতিরে তোলার চেষ্টা করলেও তাদের সেই আবেদন গ্রহণের মতো সেখানে কেউ নেই বলেই মনে করছেন রাষ্ট্রপুঞ্জে ভারতের স্থানীয় প্রতিনিধি।
ছবি:‌ এএনআই  

জনপ্রিয়

Back To Top