আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌পাকিস্তানের নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডাঃ আরিফ আলভির সঙ্গে এ দেশের চিরশত্রু ভারতের এক নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। সম্প্রতি তিনি সেই সম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে আনলেন। 
স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরুর দাঁতের চিকিৎসক ছিলেন আরিফ আলভির বাবা। পাকিস্তানের তেহরিক–ই–ইনসাফ দলের ওয়েবসাইটে তাঁর ছোট আত্মজীবনীতে এই রহস্য জানা যায়। পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী তথা তেহরিক–ই–ইনসাফ দলের প্রতিষ্ঠাতা ইমরান খানের ঘনিষ্ঠ ডাঃ আরিফ আলভি। মঙ্গলবারই তিনি এ দেশের নতুন রাষ্ট্রপতির পদে দায়িত্ব নিয়েছেন। ৬৯ বছরের দাঁতের চিকিৎসক আরিফ আলভি এ দেশের ১৩তম প্রেসিডেন্ট। তাঁর বিপরীতে ছিলেন পাকিস্তান পিপলস পার্টির প্রার্থী এয়তাজ এহসান এবং পাকিস্তান মুসলিম লিগের মৌলানা ফজল উর রহমান।
পাকিস্তানের প্রেসিডেন্টের আত্মজীবনী থেকে জানা যায়, তাঁর বাবা জওহরলাল নেহেরুর দাঁতের চিকিৎসক ছিলেন বলেই তাঁর সঙ্গে ভারতের যোগাযোগ রয়েছে তা নয়। আরিফ আলভির পরিবার আগে ভারতেই থাকতেন। কিন্তু দেশ ভাগ হওয়ার পর তাঁরা পাকিস্তানে চলে আসেন। আরিফ আলভির পূর্বসূরী মামনুন হুসেনের পরিবার আসলে আগ্রায় থাকতেন। সেখান থেকেই তাঁরা পাকিস্তানে চলে আসেন। অন্যদিকে পারভেজ মুসারফের পরিবার আগে দিল্লিতে থাকত বলে জানা গিয়েছে। আরিফ আলভির বাবা ডাঃ হাবিব উর রেহমান ইলাহি আলভি দেশভাগের আগে জওহরলাল নেহেরুর দাঁতের চিকিৎসক ছিলেন।

 

ডাঃ আরিফ আলভি। 

জনপ্রিয়

Back To Top