আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অবশেষে এল সাফল্য। ১৪ হাজার কোটি টাকার পিএনবি কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত নীরব মোদির প্রত্যর্পণে সবুজ সংকেত পেয়ে গেল ভারত। ব্রিটিশ আদালতের অনুমতির পর সেদেশের সরকার কোটি কোটি টাকার ঋণখেলাপিতে অভিযুক্ত এই হীরে ব্যবসায়ীকে ভারতে প্রত্যর্পণের অনুমতি দিয়ে দিল। যার অর্থ এবার সিবিআই চাইলেই নীরবকে দেশে ফেরাতে পারবে। 
চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতেই নীরবকে দেশে ফেরানোর ব্যাপারে সায় দিয়েছিল লন্ডনের ওয়েস্টমিনিস্টার ম্যাজিস্ট্রেটস কোর্ট। বিচারক স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছিলেন, ভারতীয় বিচারব্যবস্থার মুখোমুখি হতে হবে আর্থিক দুর্নীতিতে জড়িত ওই ব্যবসায়ীকে। তারপর থেকেই ব্রিটেনের মুখ্য সচিবের অনুমতির অপেক্ষায় ছিল ভারত। শুক্রবার প্রীতি প্যাটেল নীরবকে ফেরানোর ব্যাপারে সবুজ সংকেত দিয়ে দেওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে ফেরার এই ব্যবসায়ীকে দেশে ফেরানোর প্রক্রিয়া শুরু করতে পারবে সিবিআই। সব ঠিক থাকলে আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই দেশে ফেরানো হবে কয়েক হাজার কোটির কেলেঙ্কারিতে যুক্ত নীরবকে। 
২০১৯ সালের ১৪ মার্চ লন্ডনের একটি ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট খুলতে গিয়ে গ্রেপ্তার হন নীরব মোদি। ভারত তাঁর পাসপোর্ট আগেই বাতিল করে দিয়েছিল। কিন্তু গ্রেপ্তারির পর দেখা যায় নীরবের হেফাজতে একাধিক পাসপোর্ট রয়েছে। একটি যেমন মেট্রোপলিটন পুলিশের হেফাজতে। আর একটি মেয়াদ উত্তীর্ণ পাসপোর্ট ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে জমা আছে। তৃতীয় একটি রয়েছে দেশের ড্রাইভিং ও ভেহিক্যালস লাইসেন্স দপ্তরে। তাছাড়া নীরবের কাছে একাধিক রেসিডেন্সি কার্ড রয়েছে। যার মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি, সিঙ্গাপুর ও হংকংয়ে থাকার অনুমতি রয়েছে।

Back To Top