আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ফাইজার আগেই জরুরী ভিত্তিতে অনুমোদনের সুপারিশ করেছিল। এবার মডার্নাও তাঁদের করোনা টিকার অনুমোদনের জন্য মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের কাছে সোমবার আবেদন করল। সংস্থার তরফে এফডিএ–র কাছে সমস্ত ডেটা পাঠানো হয়েছে। বলা হয়েছে, তাঁদের করোনা টিকা ৯৪.‌১ শতাংশ কার্যকরী। এমনকি অন্যান্য ক্ষেত্রে তা ১০০ শতাংশ কার্যকরী।
এফডিএ–র ভ্যাকসিন উপদেষ্টা কমিটির তরফে চিকিৎসক পল অফিট বলেছেন, ‘‌বিষয়টি বেশ তাৎপর্যপূর্ণ।’‌ মডার্নার চিফ মেডিকেল অফিসার টাল জ্যাকস বলেছেন, ‘‌গত শনিবার টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ফল দেখে কেঁদে ফেলেছি। আশা করছি এই টিকা করোনা প্রতিরোধে সক্ষম হবে।’‌ 
গত ২০ নভেম্বর এফডিএ–র কাছে টিকা অনুমোদনের সুপারিশ করেছে ফাইজার। এবার করল মডার্না। ডিসেম্বরে এফডিএ–র উপদেষ্টা কমিটি দুই সংস্থার টিকার কার্যকারিতা নিয়ে রিভিউ করবে। 
ইতিমধ্যেই মার্কিন ইনস্টিটিউট অফ অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিসের প্রধান অ্যান্টনি ফাউচি আশাপ্রকাশ করেছেন, ডিসেম্বরেই টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হয়ে যাবে। 
৩০ হাজার মানুষের উপর তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চালিয়েছিল মডার্না। তার মধ্যে আবার দুটি ভাগ করা হয়েছিল। ১৫ হাজার মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছিল। তার মধ্যে ১১ জন করোনা পজিটিভ ছিলেন। আবার বাকি ১৫ হাজার মানুষকে স্যালাইন ওয়াটার দেওয়া হয়েছিল। তাদের মধ্যে ১৮৫ জন করোনা পজিটিভ ছিলেন। ট্রায়ালের পর মডার্নার দাবি, ভ্যাকসিন নেওয়ার পর করোনা পজিটিভ ১১ জনের কেউই গুরুতর অসুস্থ হননি। কিন্তু স্যালাইন ওয়াটার নেওয়া ১৮৫ জন করোনা পজিটিভের মধ্যে ৩০ জন গুরুতর অসুস্থ হন। একজন মারা যান। এরপরই মডার্না দাবি করে, তাঁদের তৈরি ভ্যাকসিন ৯৪.‌১ শতাংশ কার্যকরী। 

জনপ্রিয়

Back To Top