আজকাল ওয়েবডেস্ক: মুখে আধুনিকতার বুলি আওড়ালেও, তারা যে এখনও গোঁড়া রক্ষণশীলতার ঘেরাটোপ থেকে একেবারেই বেরতে পারেনি, তার প্রমাণ আবারও দিল পাকিস্তান। ফের পরিবারের সম্মান রক্ষার্থে নিজের ছোট বোনকে মাথায় গুলি করে হত্যা করল দাদা। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার পাকিস্তানের করাচির ক্লিফটন এলাকায়। যুবতীকে জিন্না পিজি মেডিক্যাল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। অভিযুক্ত হাসামিন কামারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। খুনের অস্ত্রও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। দক্ষিণ পুলিশের এসপি শিরাজ নাজির জানিয়েছেন, জেরায় হাসামিন স্বীকার করেছে, পরিবারের সম্মান রক্ষর্থেই সে তার বোনকে খুন করেছে। কারণ, তার বোন তাঁদেরই পড়শি এক যুবকের সঙ্গে কথা বলতেন, যা নিয়ে বহুবার আপত্তিও প্রকাশ করেছিল সে। কিন্তু তার বোন তার কথায় কর্ণপাত করেননি। শনিবার ভাইয়ের কাছ থেকে ফের বোনকে ওই যুবকের সঙ্গে গল্প করার খবর পেয়ে সে ঘটনাস্থলে পৌঁছে বোনের মাথা লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছিল। রক্তাক্ত যুবতী রাস্তায় লুটিয়ে পড়লে স্থানীয় মানুষরাই তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যান। ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। 

জনপ্রিয়

Back To Top