আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ করতারপুর করিডোর চত্বর আর গুরুদ্বার দরবার সাহিব সব শিখ তীর্থযাত্রীদের স্বাগত জানাতে প্রস্তুত। রবিবার করতারপুর করিডোরের আলোকিত ছবি টুইটারে পোস্ট করে একথাই লিখেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। আগামী ৯ তারিখ খুলে দেওয়া হবে করিডোর। ১২ তারিখ গুরু নানকের জন্মবার্ষিকী। তার আগেই করতারপুর করিডোর সাজিয়ে তোলার জন্য টুইটারে দেশের সরকারি কর্মীদের অভিনন্দনও জানিয়েছেন তিনি। শিখ ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা গুরু নানকের ৫০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে করতারপুরে গুরুদ্বার দরবার সাহিবের পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে। সারা বিশ্ব থেকে সব শিখদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠা উপলক্ষ্যে যে সব শিখ তীর্থযাত্রীরা পাকিস্তান যাবেন তাঁদের ভিসা–পাসপোর্ট লাগবে না এবং ২০ মার্কিন ডলার পরিষেবা করও দিতে হবে না বলে আগেই ঘোষণা করেন ইমরান।

এদিকে, করতারপুর করিডোরের উদ্বোধনের প্রতিবাদে ইসলামাবাদে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে আন্দোলনকারীরা। তাদের নেতা মৌলানা ফজলুর রহমান ইমরানকে প্রধানমন্ত্রীত্ব থেকে পদত্যাগ করতে হুমকি দিয়েছেন।   
ইতিহাস বলে, আজকের পাকিস্তানের নানকানা সাহিবে ১৪৬৯ সালে জন্ম নানকের। ১৫০৪ সালে রবি নদের তীরবর্তী একটি ছোট অঞ্চলে সপরিবার বসতি স্থাপন করেন তিনি। নানক জায়গাটির নতুন নামকরণ করেন ‘‌কর্তারপুর’‌ বা কর্তার স্থান। কর্তা বলতে ঈশ্বরকে বুঝিয়েছিলেন নানক। সেখানে যে কোনও ধর্মের মানুষকেই স্বাগত জানিয়েছিলেন নানক। ১৫৩৯ সালে মৃত্যু পর্যন্ত সেখানেই ছিলেন। যেস্থানে তিনি দেহত্যাগ করেন সেখানেই গড়ে উঠেছে আজকের দরবার সাহিব গুরুদ্বার। ভারতের পাঞ্জাবে অবস্থিত, আন্তর্জাতিক সীমান্ত লাগোয়া ডেরা বাবা নানক মন্দিরের সঙ্গে করতারপুর করিডোর দিয়ে যুক্ত করা হয়েছে পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের নারোয়ান জেলার করতারপুরের দরবার সাহিব গুরুদ্বারকে।  ‌

জনপ্রিয়

Back To Top