আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ দুই সন্তানের ভারতীয় নাগরিকত্ব হারানোর লড়াই আগেই জিতেছিলেন ব্রিটেনের আদালতে। এবার দত্তক কেন্দ্র থেকে সেই সন্তানদের দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য আবারও ব্রিটেনের আদালতে আপিল করেছেন এক প্রবাসী ভারতীয় দম্পতি।
তামিল নাড়ুর নাগাপট্টিনামের বাসিন্দা ওই দম্পতি ২০০৪ সালে ব্রিটেনে চলে যান। ২০১৫–য় তাঁদের ১১ বছরের ছেলে এবং ৯ বছরের মেয়েকে বার্মিংহ্যামের স্থানীয় শিশু সুরক্ষা কেন্দ্র বার্মিংহ্যাম চিলড্রেন্স ট্রাস্ট নিজেদের দায়িত্বে নিয়ে যায়। তারপর থেকে আর তাদের কোনও খবরাখবর পাননি দম্পতি। এরপর সন্তানদের খবর পেতে ব্রিটেনের পরিবার আদালত মামলা করেন তাঁরা। চার বছর ধরে বিভিন্ন পরিবার আদালত ঘুরে গত সপ্তাহে মামলাটি ব্রিটেনের কোর্ট অফ অ্যাপিলে যায়। সেই আদালতই রায় দেয়, যখন বাচ্চাদের আসল বাবা আপত্তি জানিয়েছে, তখন তাদের ব্রিটিশ নাগরিকত্ব দেওয়ার আগে বার্মিংহ্যাম চিলড্রেন্স ট্রাস্টের উচিত আদালতের অনুমতি নেওয়া।
বাচ্চা দুটির বাবা, ৫২ বছরের ওই ব্যক্তি বার্মিংহ্যামে সিভিল ইঞ্জিনিয়ার পদে কাজ করেন। তাঁর রোজগার তুলনামূলকভাবে কম হওয়ার কারণেই তাঁরা সন্তানদের ঠিকমতো দেখভাল করতে পারবেন না বলে মনে করেছিল বার্মিংহ্যাম চিলড্রেন্স ট্রাস্ট। তাঁর স্ত্রী তাঁদের তৃতীয় সন্তানকেও কাছছাড়া হওয়ার ভয়ে, সাড়ে চার বছরের মেয়েকে নিয়ে সিঙ্গাপুরে বাপের বাড়িতে আছেন বর্তমানে। ওই ব্যক্তি বললেন, তাঁরা এবং তাঁদের সন্তানরাও যেহেতু ভারতীয় তাই তাঁরা চান না তাদের ব্রিটিশ নাগরকিত্ব দেওয়া হোক। কারণ তাঁরা সন্তানদের নিয়ে দেশে ফিরতে চান। আদালতের এই প্রক্রিয়ায় ভারতীয় হাই কমিশনও তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছে বলে জানালেন ওই ব্যক্তি। কনসুলেট জেনারেল অফ ইন্ডিয়া বা সিজিআই–ও গত চার বছরের আইনি লড়াইয়ে ওই দম্পতিকে সাহায্য করেছে। নাগাপট্টিনামের শিশুকল্যাণ কমিটির সঙ্গেও যোগাযোগ করে সাহায্য চাওয়ার পরামর্শ দম্পতি দিয়েছে সিজিআই।       

জনপ্রিয়

Back To Top