আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতকে তিরষ্কার করল রাষ্ট্রপুঞ্জের মানবাধিকার পর্ষদ। জম্মু–কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর কেটে গিয়েছে ছয় সপ্তাহ। সোমবার রাষ্ট্রপুঞ্জের ৪২তম অধিবেশনে মানবাধিকার পর্ষদের হাইকমিশনার মিশেল বাশলেট বলেন, ‘‌জম্মু–কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদাকে বাতিল করে দেওয়ার পরে ভারত সরকার উপত্যকায় যেভাবে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে রেখেছে, তা নিয়ে অত্যন্ত উদ্বিগ্ন আমি। আন্তর্জাতিক যোগাযোগ ও শান্তিপূর্ণ সমাবেশের ওপর যেমন বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে, তেমনি স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের অবৈধ ভাবে আটকে রেখেছে ভারত সরকার। এছাড়াও কাশ্মীরিদের মানবাধিকার নিয়ে ভারত সরকারের সাম্প্রতিক পদক্ষেপগুলি অত্যন্ত চিন্তার বিষয়। আমি ভারত ও পাকিস্তান, দুই দেশের সরকারকেই নাগরিক অধিকার রক্ষা করার জন্য অনুরোধ করছি। আমি বিশেষ করে ভারতের কাছে অনুরোধ করব, বর্তমান পরিস্থিতি যাতে সহজ করা যায়, সেদিকে নজর দিন। প্রধান প্রধান পরিষেবাগুলিতে মানুষের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করার জন্য আবেদন জানাচ্ছি। কাশ্মীরকে কেন্দ্র করেই যখন এত সিদ্ধান্ত, সেক্ষেত্রে কাশ্মীরের সাধারণ মানুষের সঙ্গে পরামর্শ করা খুবই জরুরি। কারণ এই সিদ্ধান্তগুলি তাঁদের ভবিষ্যতের উপরই প্রভাব ফেলবে।’‌ গত মাসেই, মোদি সরকার জম্মু–কাশ্মীরের কয়েক দশক পুরনো বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করে সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে দেয়। পাশাপাশি ওই রাজ্যকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করারও সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় সরকার।
কাশ্মীরের পাশাপাশি অসম নিয়েও উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করেন বাছলেট। তিনি বলেন, ‘‌অসমে জাতীয় নাগরিক পঞ্জির তালিকা তৈরির মাধ্যমে অবৈধ প্রবেশকারীদের চিহ্নিত করার প্রক্রিয়ায় যে চরম অনিশ্চয়তা ও উদ্বেগ সৃষ্টি হয়েছে তা নিয়েও চিন্তিত আমি। ৩১ আগস্ট প্রকাশিত ওই চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন প্রায় ১৯ লক্ষ মানুষ। আবেদন প্রক্রিয়া চলাকালীন মানুষকে যেন রাষ্ট্রহীনতার হাত থেকে রক্ষা করা হয়, সেই বিষয়টি নিয়েও ভারত সরকারের কাছে আবেদন করছি আমি।’‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top