আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বাবার সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের পর তাঁর মায়ের কাছ থেকে ‘‌হার র‌য়্যাল হাইনেস’‌ বা ‘‌এইচআরএইচ’‌ উপাধি কেড়ে নিয়েছিল তাঁর পরিবার। এবার ব্রিটেনের প্রয়াত যুবরানি ডায়ানার ছোট ছেলে এবং পুত্রবধূ রাজকুমার হ্যারি এবং তাঁর স্ত্রী মেগান নিজেরাই তাঁদের ‘‌রয়্যাল হাইনেস’‌ উপাধি ছেঁটে ফেলতে রাজি হয়ে গেলেন। একইসঙ্গে তাঁরা জানিয়ে দিয়েছেন, রানির সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী যে বিপুল সরকারি অর্থসাহায্য তাঁরা পেতেন তাও নেবেন না। যেহেতু তাঁরা এখন নিজেদের জীবনের অনেকটা সময়ই কানাডায় কাটাবেন। স্থানীয় সময় শনিবার বাকিংহ্যাম প্রাসাদের তরফে এই ঘোষণা করা হয়েছে। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ বিবৃতি দিয়ে বলেছেন, ‘‌বহু আলোচনার পর আমি খুশি যে আমার নাতি এবং তাঁর পরিবারের সিদ্ধান্তকে সমর্থনের একটা গঠনমূলক উপায় বের করতে পেরেছি। ওঁরা গত দুবছর যে কড়া নজরদারির মধ্যে ছিল সেটা অনুভব করেছি এবং স্বাধীনভাবে জীবনযাপনের ওঁদের সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।’‌
সম্প্রতি হ্যারি–মেগান ঘোষণা করেন তাঁরা আর ব্রিটেনের রাজ পরিবারের প্রধান সদস্যের মর্যাদা বা তার দায়দায়িত্ব বহন করবেন না। তবে রানির প্রতি বিশ্বস্ত থেকে রাজ পরিবারের প্রতি কর্তব্য পালন করবেন। নিজেরা আর্থিকভাবে স্বাধীন জীবনযাপনের ঘোষণাও করেন হ্যারি–মেগান। তাঁদের সেই ঘোষণায় রাজ পরিবার সহ সারা ব্রিটেনে বজ্রপাত হয়। সাধারণ মানুষ তাঁদের সিদ্ধান্তকে সমর্থন করলেও রাজ পরিবারের তরফে তাঁদের বোঝানোর চেষ্টা করা হয়। যদিও সেই কাজে যে রাজ পরিবার ব্যর্থ হয়েছে শনিবারের ঘোষণাই তার প্রমাণ। আর বরাবরই মায়ের মতো রাজ পরিবারের কড়া অনুশাসনের বিপরীতমুখে হাঁটা হ্যারি তাঁর এই পদক্ষেপে ফের প্রমাণ করলেন জনতার যুবরানি ডায়ানার আদর্শেই তিনি বেশি অনুপ্রাণিত।

জনপ্রিয়

Back To Top