আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ চিকিৎসা পরিষেবায় হাসি একটা ভালো থেরাপি বা রোগ নিরাময়ের উপায়। সেকারণে দিকে দিকে আজ এতো লাফিং ক্লাবের রমরমা। কিন্তু অট্টহাস্য সবসময়ই ভালো যে হয় না, মাঝেমধ্যেই নানারকম সমস্যা তৈরি করে সেব্যাপারেও আজকাল সতর্ক করছেন চিকিৎসকরা। সেরকমই একটা আশ্চর্যজনক ঘটনা ঘটল চীনের গুয়াংডন প্রদেশের একটি ট্রেনে এক মহিলা যাত্রীর সঙ্গে। সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, গুয়াংঝৌ দক্ষিণ স্টেশনগামী ওই ট্রেনের যাত্রী ওই মহিলা কোনও কারণে অত্যন্ত জোরে হাসছিলেন। মুখ হাঁ করে জোরে হাসার ফলেই তাঁর চোয়াল একদিকে সরে যায়। ফলে তিনি মুখ বন্ধ করতে পারছিলেন না। রেলের নিজস্ব কোনও চিকিৎসক উপস্থিত না থাকায় রেল কর্তৃপক্ষ ট্রেনের ভিতর কোনও চিকিৎসক আছেন কিনা জানতে চেয়ে ঘোষণা করে মাইকে।

ওই ট্রেনেরই যাত্রী ছিলেন লিওয়ান হাসপাতালের চিকিৎসক লুও ওয়েংশেং। রেলকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে দ্রুত ওই মহিলা যাত্রীর কাছে পৌঁছন লুও। লুও বললেন, কাঁপতে থাকা ওই মহিলাকে দেখে তিনি ভেবেছিলেন তাঁর স্ট্রোক হয়েছে। তবে রক্তচাপ পরীক্ষা করে এবং ঘটনা জানতে পেরে দুবারের চেষ্টায় তাঁর সরে যাওয়া চোয়াল আগের জায়গায় ফিরিয়ে আনেন নুও। সেসময় মহিলাকে বিভিন্ন কথা বলে অন্যমনস্ক রাখেন তিনি। মহিলা লুওকে জানান, গর্ভাবস্থায় বমি করতে গিয়ে আগেও একবার তাঁর চোয়াল সরে গিয়েছিল। তাঁকে ফের এভাবে বড় করে মুখ না খুলতে পরামর্শ দিয়েছেন লুও।
ছবি:‌ পাঞ্জাবকেসরি, সোশ্যালনিউজডেইলি   

জনপ্রিয়

Back To Top