আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ হঠাৎ সোশ্যাল মিডিয়ায় হইচই। চীনের ইয়াংজি নদীতে নাকি দেখা মিলেছে প্রথম চীনা লক নেস দৈত্যের।
স্থানীয় সময় সোমবার চীনের হুবেই প্রদেশের থ্রি গর্জেস বাঁধের কাছে ইয়াংজি নদীতে ২০ মিটার লম্বা কালচে রং–এর কিছু ভেসে বেড়াতে দেখা যায়। সেই ছবি এবং ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হতেই তা মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়। থ্রি গর্জেস বাঁধের কাছে প্রথমবার দেখা মেলায় নেটিজেনরা তার নাম দেয় ‘‌থ্রি গর্জেস জলদৈত্য’‌। নেটিজেনরা কেউ বলতে থাকে এটা চীনে খোঁজ পাওয়া প্রথম লক নেস দৈত্য। কেউ আবার বলে, জলদূষণের ফলেই এই ঘটনা। যদিও বিজ্ঞানীরা প্রথমে অনুমান করেছিলেন কোনও বিশালাকার সাপ হতে পারে বস্তুটি। কিন্তু সেই তথ্যও ভুল প্রমাণিত হয় মঙ্গলবার সকালে।

ইয়াংজি নদীর নৌ পরিষেবার কর্মীরা বস্তুটি জল থেকে টেনে বের করলে দেখা যায় সেটি ২০ মিটার লম্বা একটি কালো রবারের টিউব। কর্মীদের অনুমান, সম্ভবত কোনও জাহাজ থেকে তা নদীতে পড়ে গিয়েছিল। টিউবটি জল থেকে বের করেই নষ্ট করে ফেলেন তাঁরা। একইসঙ্গে আবেদন করেন সোশ্যাল মিডিয়ায় যেন এভাবে ভুল তথ্য না পোস্ট করা হয়।
১৮০২ সালে স্কটল্যান্ডের লক নেস হ্রদে প্রথমবার সাপের মতো দেখতে লম্বা গলার বিশালাকার দৈত্য দেখা গিয়েছিল বলে প্রচলিত। লক নেস হ্রদে প্রথমবার দেখা মেলায় তার নাম দেওয়া হয় লক নেস দৈত্য বা নেসি। যদিও কোনও প্রত্যক্ষ প্রমাণ না থাকায় পুরোটাই কল্পনা বলেই মনে করেন প্রাণী বিজ্ঞানীরা। কিন্তু স্ক্যান্ডানেভিয়ানদের বিশ্বাস নেসি সত্যিই আজও লক নেস হৃদে ঘুরে বেড়ায়।
ছবি:‌ শাংঘাইস্ট     

জনপ্রিয়

Back To Top