আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে বাধা তৈরি করলে ক্ষতি ভারতেরই। সুর কিছুটা নরম করে বার্তা চীনের। পূর্ব লাদাখের গালোয়ানে লাল ফৌজের হামলার পর চীনের বিরুদ্ধে একাধিক পদক্ষেপ করছে কেন্দ্র। অধিকাংশই অর্থনৈতিক পদক্ষেপ। সম্প্রতি টিকটক সহ ৫৯টি চীনা অ্যাপ দেশে নিষিদ্ধ করেছে মোদি সরকার। তার পরেই সামনে এল বেজিং–এর এই বক্তব্য। পাশাপাশি চীনা অ্যাপ বাতিল করার সিদ্ধান্ত ডব্লুটিও–এর নিয়ম বিরোধী বলেও মন্তব্য করে চীনা প্রশাসন। চীনা বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র বলেন, সীমান্তে শান্তি বজায় রাখতে দু’‌দেশই ক্রমাগত চেষ্টা করে যাওয়া উচিত। চীনের যে সংস্থাগুলি ভারতে ব্যবসা করে, তারা যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেবিষয়ে উদ্যোগ নেবে বেজিং। চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করার পর পরিবহণ মন্ত্রী নীতিন গড়করি জানিয়েছেন, ভারতের হাইওয়ে প্রকল্পেও কোনও চীনা সংস্থাকে কাজ করতে দেওয়া হবে না।
প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে এদিন হঠাৎ করেই লে–লাদাখ সফরে চলে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেখানে সেনাদজের মনোবল বাড়াতে বার্তাও দেন তিনি। তবে সীমান্ত সমস্যা বিগত কয়েক মাস ধরেই জোরাল হয়েছে। শান্তি বজায় রাখতে কূটনৈতিক ও সামরিক পর্যায়ে একাধিকবার বৈঠকের পরও কোনও সমাধানসূত্র বেরোয়নি।

জনপ্রিয়

Back To Top