আজকাল ওয়েবডেস্ক: কোভিড মহামারীর আগে প্রতিবছর দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় কয়েক লক্ষ পর্যটকদের ভিড় লেগেই থাকত। শুধু গত বছরই দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় ১৩৩ মিলিয়ন পর্যটক ঘুরতে এসেছিলেন। ভারতই হোক বা ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপিন্স বা শ্রীলঙ্কা— মন্দির, বৌদ্ধ বিহার, সমুদ্র সৈকত বা পাহাড়ে দেশবিদেশের পর্যটকদের ভিড়ের ঠেলায় কখনও কখনও পরিবেশ নষ্ট হত। অভিযোগ করতেন পরিবেশবিদরা। স্থানীয় বাসিন্দাদেরও পর্যটকদের এই ভিড় বিরক্তির কারণ হয়ে উঠত।


কিন্তু মহামারীর ধাক্কায় ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক, দুরকম পর্যটনই থমকে গিয়েছে। তার ফল ভুগতে হচ্ছে দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার কিছু দেশগুলিকে যাদের অর্থনীতি অনেকাংশেই পর্যটন শিল্প নির্ভর। যেমন কাম্বোডিয়ার জিডিপি–র ৩০ শতাংশই আসে পর্যটন থেকে। পেসিফিক এশিয়া ট্র‌্যাভেল অ্যাসোসিয়েশন বা পিএটিএ বলেছে, আগামী দিনে এশিয়া–পেসিফিকের এই অঞ্চল প্রায় ৩৪.‌৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের রোজগার হারাবে।


বিশেষজ্ঞদের মতে, পর্যটনে নিষেধাজ্ঞা উঠলেই দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার পর্যটন শিল্প নির্ভর দেশগুলি পর্যটকদের টানতে ঝাঁপিয়ে পড়বে। তাতে পরিবেশ এবং জনস্বাস্থ্য সুরক্ষা বিপদে পড়ে হিতে বিপরীত হওয়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের অভিমত, এই ফাঁকা সময়টাতেই এই দেশগুলি নতুন করে চিন্তাভাবনা করতে পারে, যে কীভাবে তারা পর্যটকটেনে নিজেদের দেশের অর্থনীতি বাড়াবে এবং একইসঙ্গে পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রেখে এই গ্রহের সুরক্ষায় নিজেদের অবদান দিতে পারবে।     

জনপ্রিয়

Back To Top