আজকাল ওয়েবডেস্ক: একদিনের হঠাৎ আলাপ কোনও যুবতীর সঙ্গে। যুবকের চোখে ভালোলাগার ঘোর। ফোন নম্বর চাইলে যুবতী যদি ভুল নম্বর বলেন, তাহলে হয়ত সেই রেশ কেটে যায় কিছুদিনের মধ্যেই। কিন্তু সেই ঘটনা যদি একসূত্রে বেঁধে দেয় এক নামের ২৪৬ জন মহিলাকে তাহলে সেই যুবককে তো কুর্নিশ জানাতেই হয়। 
ঘটনার সূত্রপাত স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাতে কানাডার অ্যালবার্টা প্রদেশের ক্যালগারি বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরের একটি পানশালায়। সেখানে ওইদিন একসঙ্গে কিছুটা সময় কাটিয়েছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়েরই ছাত্র কার্লোস জেনিটা এবং নিকোল নামে এক যুবতী। চলে যাওয়ার সময় ফোন নম্বর চাইলে নিকোল কার্লোসকে ভুল নম্বর দেন। সেই নম্বরে ফোন করে ভুল বুঝতে পেরেই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেন কার্লোস। তাঁর ভালোলাগার মানুষটির প্রথম নাম নিকোল ছাড়া কার্লোসের কাছে আর কোনও তথ্য ছিল না।
এরপরই ক্যালগারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৪৬ জন মহিলাকে তিনি ই–মেল পাঠান, যাঁদের প্রথম নাম নিকোল। ই–মেলে কার্লোস শুধু লিখেছিলেন, ‘‌গত রাতে তোমার সঙ্গে দেখা হয়েছিল। তুমি আমায় ভুল ফোন নম্বর দিয়েছিলে’‌। কার্লোসের সেই ই–মেলের সূত্র ধরেই ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৪৬ জন নিকোল পরস্পরের সঙ্গে পরিচিত হন। তাঁদের কেউ সদ্য তরুণী, কেউ পূর্ণ যুবতী, কেউ মধ্যবয়স্কা, তো কেউ প্রৌঢ়া। কিন্তু এখন তাঁরা প্রত্যেকে পরস্পরের ঘনিষ্ঠ বন্ধু। আর সেজন্য কার্লোসকেই ধন্যবাদ জানাচ্ছেন ২৪৬ জন নিকোল। নিকোল রথবার্গার নামে একজন জানালেন, তাঁরা ফেসবুকে ‘‌নিকোল ফ্রম লাস্ট নাইট’ বলে একটি পেজ খুলেছেন। ‌নিকোল ম্যানাওগ নামে আরেকজন বললেন, তাঁরা এখন সবাই নিকোল নেটওয়র্কের সদস্য। ইতিমধ্যেই ক্যাম্পাসের একটি পানশালায় দিন দুয়েক আগে ১৫ জন নিকোল একত্রিত হয়েছিলেন। সেখানেই, কার্লোসের আসল নিকোলের সন্ধান পেয়েছেন বাকি নিকোলরা। আসল নিকোলকে পুরো ঘটনা জানান তাঁরা। এরপরই দ্বিতীয়বার দেখা করতে চেয়ে কার্লোসকে টেক্সট করেন নিকোল। বাকি নিকোলরা জানালেন, আগামী সপ্তাহে কফিশপে দু’‌জনের দেখা করার কথা। তবে সেখানে তাঁরা আমন্ত্রিত নন। 

জনপ্রিয়

Back To Top