আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ খুব শীঘ্রই লকডাউন পরিস্থিতি কমিয়ে আনার কথা ভেবেছিল স্পেন। কিন্তু করোনার প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধিতে তা আর হচ্ছে না। বরং তা বাড়িয়ে দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেড্রো সানচেজ এদিন সংসদে বলেন, ‘‌আমি অনুরোধ করছি সবার কাছে ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত জরুরি অবস্থা জারি রাখতে। কারণ আমরা খারাপ পরিস্থিতির সর্বোচ্চ চূড়ায় পৌঁছে গিয়েছি। তাই আবার একই পথে হাঁটতে হচ্ছে।’‌
তিনি সতর্ক করে জানান, স্বাভাবিক জনজীবন যেভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে তাতে এবার স্বাস্থ্য ব্যবস্থা শোচনীয় ক্রাইসিসের মধ্যে পড়বে। এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে ওপরে ওঠা খুব কঠিন। ১৯১৮ সালের ফ্লু–এর পর এবার সবথেকে বড় বিপদের মধ্যে পড়েছি আমরা। তাই এখন স্বাভাবিক জীবনযাপন সম্ভব নয়। আমাদের এবার ব্যাকফুটে যেতে হবে। সেটা করা ভাল সেটব্যাক হওয়ার থেকে।
গোটা ইউরোপে করোনাভাইরাসের বাড়বাড়ন্তে খুব খারাপ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। তাই স্প্যানিশ সরকারকে ইউরোপ সাহায্য করতে পারবে না। এখন একজোট হয়ে এই বিপদের দিনে করোনার মোকাবিলা করতে হবে। করোনাভাইরাসে ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন বিপদের মধ্যে পড়েছে, তবে এখানে সান্ত্বনা দেওয়ার জায়গা নেই। এই গোটা পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করে স্পেনের প্রধানমন্ত্রী বিরোধী সাংসদদের জানান, কাজের একটা পরিকল্পনা করে ধীরে ধীরে কাজ করতে হবে। যতদিন না দেশে স্বাভাবিক ছন্দ ফিরে আসছে। তবে আমরা জানি না কি ধরনের স্বাভাবিকতা ফিরবে!‌ কারণ দেড় লাখ মানুষ এখন করোনায় আক্রান্ত।

জনপ্রিয়

Back To Top