আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌‘‌সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ডিসেম্বরের শেষে কিংবা আগামী বছরের জানুয়ারির শুরুতে ঝুঁকিপূর্ণ মার্কিনিদের জন্য বাজারে চলে আসতে পারে কোভিড ভ্যাকসিন’‌, আশ্বস্ত করলেন হোয়াইট হাউজের মুখ্য স্বাস্থ্য উপদেষ্টা এপিডেমোলজিস্ট অ্যান্থনি ফসি। টুইটার এবং ফেসবুকে একটি ভিডিও সাক্ষাৎকারে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ অ্যালার্জি ইনফেকশাস ডিজিজের ডিরেক্টর বলেন, ‘‌করোনা প্রতিষেধক তৈরির দৌড়ে আমেরিকায় মডার্না এবং ফাইজারের মতো ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা অনেকটা এগিয়ে রয়েছে। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই হয়ত ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের শেষ পর্যায়ের প্রাথমিক রিপোর্ট হাতে চলে আসবে। 
মডার্না এবং ফাইজার, দুই কোম্পানিই জুলাইয়ের শেষের দিকে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের শেষ পর্যায়ের কাজ শুরু করেছিল ১০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক নিয়ে। বৃহস্পতিবার মডার্নার তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আগামী মাসের মধ্যেই ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের শেষ পর্যায়ের রিপোর্ট নিয়ে হাজির হবে তারা। ফাইজারের রিপোর্ট অবশ্য অক্টোবরেই প্রকাশিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ পাওয়া খবর, আগামী 3 নভেম্বরের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে অন্তত সেই রিপোর্ট প্রকাশিত হবে না। 
আমেরিকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ হেলথ–এর ডিরেক্টর ডঃ ফ্রান্সিস কলিন্সের সঙ্গে কথোপকথনে ফসি বলেন, ‘‌প্রাক–করোনা পর্বে ফিরে যেতে ঠিক কতটা সময় লাগবে, তা পুরোপুরি নির্ভর করছে দেশে–বিদেশে টিকাকরণ কতটা দ্রুত হচ্ছে, তার ওপর। স্বাভাবিক পর্যায়ে ফিরে যেতে আরও একটা গোটা বছর অপেক্ষা করতে হতে পারে। অন্তত ২০২১–এর শেষ পর্যন্ত।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top