আজকাল ওয়েবডেস্ক: এশীয় সংস্কৃতির সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে পদ্মফুল। শুধু ভারত নয়, ভিয়েতনামেরও জাতীয় ফুল পদ্ম। সংস্কৃতি এবং ধর্মীয় ক্ষেত্রে এই ফুলের ব্যবহার বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। এই ফুলের বীজ সৌন্দর্য ধরে রাখতে এবং বাড়াতে কাজে। বিশেষ করে মানুষের ত্বক এবং চুলের যত্ন নিতে পদ্মবীজ মহৌষধের ভূমিকা নেয়। আসুন দেখে নেওয়া যাক কী কী উপকারিতা আছে পদ্মবীজের।
১) যাঁদের তৈলাক্ত ত্বক, তাঁদের অনেকেই ব্রণ নিয়ে খুবই সমস্যায় পড়েন। তাছাড়া অতিরিক্ত তৈলাক্ত ত্বক দেখতেও ভাল লাগে না। পদ্মবীজের তেল ব্যবহার করে চামড়ায় তেলের আধিক্য কমানো যায়। এত ব্রণ হওয়াও আটকায় ম্যাজিকের মতো। অ্যারোমাথেরাপিতে পদ্মবীজের তেলের বহুল ব্যবহার রয়েছে। 
২) শুকনো ত্বককে জেল্লা দিতে এই ফুলের নির্যাস ব্যবহৃত হয়। এর মধ্যে প্রাকৃতিকভাবে আর্দ্রতা প্রদানকারী উপাদান রয়েছে যা কোঁচকানো চামড়া, বাদামি স্পট মিলিয়ে দেয়।
৩) শুকনো ত্বকের সঙ্গে অনেকের চামড়ায় কম বয়সেই ভাঁজ পড়ে যায়। পদ্মবীজের নির্যাস ব্যবহার করলে তাৎক্ষণিক কাজ দেয়। এই কারণেই সৌন্দর্যবর্ধক পণ্যতে পদ্ম এবং পদ্মবীজের নির্যাস মেশানো থাকে। 
৪) শুধু ত্বক নয়, চুলের জন্যও উপকারী জাতীয় ফুল। এই কারণেই আমরা যেসব কন্ডিশনার ব্যবহার করি, তাতে মেলানো থাকে পদ্মের নির্যাস। চকচকে, মজবুত চুল পেতে তাই ব্যবহার করুন পদ্মফুল।
৫) অনেকেরই কম বয়সে চুল পেকে যায় কিংবা ধূসর হয়ে যায়। পদ্মের এসেনশিয়াল তেলে আছে এমন উপাদান যা ধূসর চুলে মেলানিন বাড়িয়ে আবার আগের অবস্থায় ফিরিয়ে নিয়ে যায়। 
৬) চকচকে এবং কালো চুল তো হল। কিন্তু যদি চুলই না থাকে তবে? এই সমস্যাতেও কাজে আসবে বিজেপির দলীয় প্রতীক। ব্যবহার করুন পদ্মের নির্যাস
 

জনপ্রিয়

Back To Top