‌আজকালের প্রতিবেদন: নিজের উত্তরপত্র এবার নিজেই মূল্যায়ন করতে পারবেন উচ্চমাধ্যমিক উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা। চলতি বছর থেকেই ছাত্রছাত্রীদের এই সুযোগ দিতে চলেছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। নিজের খাতা নিজেই মূল্যায়ন করার বিষয়টি রাজ্যে তো বটেই, এই স্তরে দেশের মধ্যেও প্রথম বলে সংসদ সূত্রে জানা গেছে।
খাতা দেখার পর মূল্যায়ন নিয়ে কোনও প্রশ্ন বা অভিযোগ থাকলে তা সমাধানের সুযোগও পাবেন পড়ুয়ারা। সেক্ষেত্রে বিষয় বিশেষজ্ঞদের দিয়ে নির্দিষ্ট পরীক্ষার্থীর খাতা ফের মূল্যায়ন করানো হবে। একজন পরীক্ষার্থী চাইলে তাঁর প্রতিটি বিষয়ের খাতাই দেখতে পারবেন। অনলাইনে আবেদন করতে হবে। তবে পুনর্মূল্যায়নের ফল প্রকাশের পর। এ বছর ৫ জুলাই থেকে সংসদের ওয়েবসাইট মারফত আবেদন করতে পারবেন ইচ্ছুক ছাত্রছাত্রীরা। ৪ জুলাই পুনর্মূল্যায়ন বা রিভিউয়ের ফল প্রকাশিত হবে।
উচ্চমাধ্যমিকে খাতা দেখা নিয়ে বিভিন্ন সময়ে নানা অভিযোগ উঠেছে। পুনর্মূল্যায়নের পর নম্বর বাড়ার হারে উদ্বিগ্ন সংসদ এ নিয়ে পরীক্ষকদের সতর্কও করেছে। পরীক্ষার্থী নিজেই নিজের খাতা দেখার সুযোগ পাওয়ায় পরীক্ষকরা এবার থেকে মূল্যায়নে আরও যত্নবান হবেন বলে মনে করছে সংসদ। এ নিয়ে সংসদ সভাপতি মহুয়া দাস সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, ‘‌তথ্য জানার অধিকার আইনে খাতা দেখার বিষয়টিকে সরলীকরণ করতে চেয়েই এই সিদ্ধান্ত। তথ্য জানার অধিকার আইনে খাতা দেখতে গেলে একজন পরীক্ষার্থীকে ডাকযোগে আবেদন করতে হত। অনেক সময় লাগত। অনেক ক্ষেত্রে আবার আবেদন ঠিক সময়ে এসে পৌঁছোত না। কিন্তু এক্ষেত্রে অনলাইনে আবেদন করা যাবে। ফলে গোটা প্রক্রিয়াটি অনেক দ্রুততা এবং স্বচ্ছতার সঙ্গে হবে।’‌ সরকারি স্কুল শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সৌগত বসু বলেন, ‘‌বিভিন্ন পরীক্ষার স্বচ্ছতা যখন প্রশ্নের মুখে পড়েছে, তখন সংসদের এই উদ্যোগ প্রশংসনীয়। এতে ছাত্রছাত্রীরা উপকৃত হবে।’‌
সংসদ সূত্রে জানা গেছে, পুনর্মূল্যায়নের ফল প্রকাশের পর এবং রেজাল্ট বেরোনোর ৬ মাসের মধ্যে উত্তরপত্র মূল্যায়ন করতে চেয়ে অনলাইনে আবেদন করা যাবে। অনলাইনেই সংসদ জানাবে নির্দিষ্ট পরীক্ষার্থী কবে এসে তাঁর খাতা দেখতে পারবেন। খাতা দেখার জন্য কোনও ফি লাগবে না। কিন্তু মূল্যায়ন নিয়ে কোনও প্রশ্ন বা বক্তব্য থাকলে ফের সংসদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই আবেদন করতে হবে। সংসদ বিষয় বিশেষজ্ঞ দিয়ে সেই খাতা ফের মূল্যায়ন করাবে। এক্ষেত্রে ফি দিতে হবে। পরীক্ষার্থী তাঁর খাতার প্রতিলিপি বাড়ি নিয়ে যেতে চাইলেও আবেদন করতে হবে এবং ফি দিতে হবে।

জনপ্রিয়

Back To Top