আজকালের প্রতিবেদন: নিশ্চিন্তে বাচ্চাকে দিতে পারেন বিসিজি টিকা। কোনও ভয় নেই। আশ্বস্ত করলেন গবেষকরা। চিকিৎসা বিজ্ঞানের বিখ্যাত জার্নাল ‘‌সেল রিপোর্টস মেডিসিন’‌–এ প্রকাশিত হয়েছে তাদের বক্তব্য। সম্প্রতি রটেছিল, বিসিজি টিকা নিলে কোভিড সংক্রমণ হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়। ঘটনাচক্রে এই সময়ই হাতে এল গত পঁাচ বছর ধরে চলতে থাকা এক গবেষণার ফলাফল। তার ভিত্তিতে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ক্ষতি তো হয়ই না, বরং বিসিজি টিকা মানবদেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে চাঙ্গা করে।  
গত পঁাচ বছর ধরে, অর্থাৎ করোনা অতিমারী ছড়াতে শুরু করার অনেক আগে, বিসিজি টিকা দেওয়া হয়েছে, এমন এক দল স্বেচ্ছাসেবীকে পরীক্ষা করে বিজ্ঞানীরা নিশ্চিত হয়েছেন, বিসিজি টিকা সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং কোভিড সংক্রমণের প্রতিরোধে কিছু দূর কার্যকরও বটে। প্রাথমিক পর্যায়ে যক্ষ্মা রোগ ঠেকাতে এই টিকা দেওয়া হলেও নিরন্তর গবেষণার মাধ্যমে এই টিকার ক্ষমতা এখন আরও উন্নত, যা সার্বিকভাবে গোটা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দীর্ঘ সময়ের জন্য বাড়িয়ে দেয় বলে রায় দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। যে কারণে সারা বিশ্ব জুড়েই এই টিকা নেওয়া প্রায় আবশ্যিক হয়ে গেছে। তার পরেও এই টিকার কার্যকারিতা সম্বন্ধে নিশ্চিত হওয়ার জন্য আবারও পরীক্ষায় উদ্যোগী হন ইওরোপের একাধিক নামী প্রতিষ্ঠানের গবেষকরা। ২০১৭ এপ্রিল থেকে ২০১৮ জুনের মধ্যে একদল স্বাস্থ্যবান স্বেচ্ছা–পরীক্ষার্থীকে এই টিকা দেওয়া হয়। ২০২০ মার্চ থেকে মে–র মধ্যে পর্যবেক্ষণ চালিয়ে দেখা যায়, যঁারা টিকা নিয়েছিলেন, তঁাদের মধ্যে দু’‌বছরে অসুস্থ হওয়ার হার নেহাতই কম। প্রায় কেউই কোনও গুরুতর অসুখে পড়েননি।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top