‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ উচ্চশিক্ষায় প্রবেশিকা পরীক্ষার ক্ষেত্রে কি বিনামূল্যে কোচিং দেওয়া হবে?‌ এমনই প্রশ্ন নিয়ে জল্পনায় মেতেছে দেশের পড়ুয়ারা। তবে এটা হয়তো সম্ভব হতে চলেছে, কারণ জাতীয় পরীক্ষক সংস্থা ঠিক করেছে সরকারি পরীক্ষা থেকে উচ্চশিক্ষার প্রবেশিকা পরীক্ষার জন্য ২,৬৯৭টি পরীক্ষাকেন্দ্র তৈরি করছে। যেখানে অনুশীলন করা যাবে এবং তা বিনামূল্যে করা যাবে। ২০১৯ সাল থেকে এই কোচিং সেন্টারগুলি চালু হবে বলে খবর। ফলে বহু মধ্যবিত্ত, নিম্ন মধ্যবিত্ত পরীক্ষার্থীর উপকার হবে। 
কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রক সূত্রে খবর, এই কোচিং সেন্টারগুলি কাজ করতে শুরু করবে ৮ সেপ্টেম্বর থেকে। বেসরকারি কোচিং সেন্টারগুলি উচ্চশিক্ষায় প্রবেশিকা পরীক্ষায় হোক বা সরকারি চাকরির পরীক্ষা হোক তার জন্য প্রচুর টাকা নেয় পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে। অনেকেই তা দিতে পারে না বলে মেধাবী প্রার্থীরা সুযোগ পায় না। এই কোচিং সেন্টারগুলিতে অনুশীলনও করানো হবে। পঠনপাঠন করিয়ে ছাত্রছাত্রীদের তৈরিও করে দেওয়া হবে। গ্রামীণ ও আধা–গ্রামীণ এলাকার পরীক্ষার্থী, প্রার্থী ও ছাত্রছাত্রীদের জন্য এই কোচিং সেন্টারগুলি উপযোগী হবে। ২০১৯ সালের মে মাস থেকে এই কোচিং সেন্টারগুলিতে পড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। 
জাতীয় পরীক্ষক সংস্থা এখানে মক টেস্ট থেকে শুরু করে জয়েন্ট এন্ট্রান্স, নিট সহ–নানা পরীক্ষার পড়াশোনা করাবে। পাশাপাশি চাকরির পরীক্ষার ক্ষেত্রেও অনুশীলন থেকে পড়াশোনার ব্যবস্থা করবে তারা। ফলে এই উদ্যোগে বিপুল পরিমান ছাত্রছাত্রী–পরীক্ষার্থী উপকৃত হবে বলে মনে করা হচ্ছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top