আজকাল ওয়েবডেস্ক: কোভিড মহামারীর জন্য টানা কয়েক মাস বন্ধ থাকার পর গত সেপ্টেম্বরেই ফের সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হয় তাজ মহল। কিন্তু পৃথিবীর সপ্তম আশ্চর্যের মধ্যে অন্যতম স্থাপত্যটিএই কয়েক মাসে ধুলোর এবং বিষাক্ত গ্যাসের আস্তরণে ঢেকে গিয়েছে পুরোপুরি। তাজ মহল সংলগ্ন এলাকার কারখানা থেকে নির্গত গ্যাস এবং ধুলোর জেরেই এই অবস্থা বিশ্বের অন্যতম আশ্চর্যের। বিশেষজ্ঞদের অনুমান, পর্যটকদের আনাগোণার কারণে যে নিয়মিত সাফাই চলত তাজের তা এই কয়েক মাস বন্ধ থাকার ফলেই এই বিপত্তি। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, দেশের দূষিত শহরগুলির মধ্যে নবমতম আগ্রাজুড়ে নির্মাণ কাজ, আর কলকারখানার কারণে সেখানে বায়ু দূষণ চরমে পৌঁছিয়েছে। আজ এবং মানুষজনেরও বিপদ ঘটনাচ্ছে। অথচ প্রশাসন নির্বিকার। জাতীয় স্মৃতিস্তম্ভ সুরক্ষা কমিটির সভাপতি সৈয়দ মুন্নাওয়ার আলির সাফাই, আগ্রায় সবুজায়ন প্রকল্প গৃহীত হয়েছে। সব কটি নির্মাণ সংস্থাকে দূষণ কমানোর আবেদন করা হয়েছে। খুব শিগগিরি আগ্রায় ১০০টি ইলেক্ট্রিক বাস চালু হবে, যেগুলি তাজের ২০ মিটার ব্যাসার্ধের মধ্যে যাতায়াত করবে। ফলে দূষণ কমে, আশা তাঁর।
ছবি:‌ এএনআই  ‌‌‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top