আজকালের প্রতিবেদন: নিজস্ব উদ্যোগের ওপর বিশেষ জোর দিতে চায় অ্যাডামাস ইউনিভার্সিটি। শুধু ডিগ্রি বা চাকরি নয়, পড়ুয়ারা যাতে নিজেদের শিক্ষা কাজে লাগিয়ে স্বনির্ভর হয়ে উঠতে পারেন, সেজন্যই এই সিদ্ধান্ত। মঙ্গলবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে তৃতীয় সমাবর্তন নিয়ে এক সাংবাদিক বৈঠকে একথা জানালেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য সমিত রায়। 
আজ, বুধবার দুপুর দুটো থেকে অনুষ্ঠান শুরু হবে বারাসতের অ্যাডামাস ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসের কনভোকেশন হলে। উপস্থিত থাকবেন আচার্য সমিত রায়, ক্যালিফোর্নিয়ার সান্টা ক্লারার ইভোলকো ইন কর্পোরেশন‌ সংস্থার চেয়ারম্যান অর্জুন মালহোত্রা, এমআইটি–র মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ার প্রফেসর ললিত আনন্দ, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মধুসূদন চক্রবর্তী প্রমুখ। সমাবর্তনে ডক্টর অফ সায়েন্স বা ডিএসসি দেওয়া হচ্ছে হিউস্টনের টেগোর সোসাইটির অধিকর্তা রুমা আচার্যকে। অর্থনীতি, বাণিজ্য, কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন্‌স, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং, মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং, বায়োকেমিস্ট্রি, বায়োটেকনোলজি, বোটানি, মাইক্রোবায়োলজি, বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন, গণজ্ঞাপন ও সাংবাদিকতা, গণিত, পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, ভূগোল, ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য, সমাজবিদ্যা, ইতিহাস, রাজনীতি ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, রাজনীতি ও প্রশাসন বিষয়ে স্নাতকস্তরে ২৪৩ জন এবং স্নাতকোত্তরের ৬৩ জন ছাত্র–ছাত্রী ডিগ্রি অর্জন করবেন। একইসঙ্গে স্কুল অফ ফার্মাসিউটিক্যাল টেকনোলজির ৫০ জন ছাত্র–ছাত্রীকে ডিপ্লোমার শংসাপত্র দেওয়া হবে। এদিন আচার্য জানান, অ্যাডামাসের শিক্ষার মান আন্তর্জাতিক স্তরের। এই প্রতিষ্ঠান অল্প দিনেই শিক্ষার জগতে যোগ্যতার নিরিখে জায়গা করে নিয়েছে। সহ উপাচার্য উজ্জ্বল কুমার চৌধুরি জানান, নতুন শিক্ষাবর্ষে গণমাধ্যমের বিভিন্ন কোর্স চালু হচ্ছে। চালু হবে মিডিয়া টেকনোলজিতে এমবিএ–র পাঠক্রমও।

জনপ্রিয়

Back To Top