আজকাল ওয়েবডেস্ক: আত্মঘাতী হওয়ার আগে গুগল্‌–এ নিজের নাম দিয়ে সার্চ করেছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত। খোঁজ করেছিলেন তাঁর প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ানের আত্মহত্যার খবর। যার থেকে মুম্বই পুলিশের ধারণা, দিশার মৃত্যুর সঙ্গে তাঁর নিজের জড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা নিয়ে উদ্বেগে ছিলেন অভিনেতা। সোমবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে জানালেন মুম্বইয়ের পুলিশ কমিশনার পরমবীর সিং। 
আত্মহত্যার দিন, অর্থাৎ ১৪ জুন পর্যন্ত এই খোঁজাখুঁজি করে গিয়েছিলেন সুশান্ত। জানা গিয়েছে তাঁর মোবাইল এবং ল্যাপটপ থেকে। পুলিশের দাবি, ক্ষণে ক্ষণে মেজাজ মর্জি এবং মানসিক স্থিতি বদলে যাওয়ার রোগ ‘‌বাইপোলার ডিজঅর্ডার’‌–এ ভুগতেন সুশান্ত সিং রাজপুত। তার চিকিৎসাও চলছিল।
 সুশান্তের অ্যাকাউন্ট থেকে ১৫ কোটি টাকা গায়েব হয়ে যাওয়ার অভিযোগে পাটনায় পুলিশের কাছে যে এফআইআর করেছে অভিনেতার পরিবার, সে ব্যাপারে পুলিশ কমিশনার এদিন বলেন, তদন্তে তাঁরাও খুঁজে পেয়েছেন, সুশান্তের অ্যাকাউন্টে মোট ১৮ কোটি ছিল। এখন সেখানে ৪.‌৫ কোটি টাকা আছে। যদিও সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর অ্যাকাউন্টে সরাসরি কোনও টাকা ট্রান্সফার হওয়ার তথ্য পাওয়া যায়নি। রিয়াকে বেশ কয়েকবার ডেকে জেরা করেছে মুম্বই পুলিশ। তাঁর বয়ান দুবার রেকর্ড করা হয়েছে। নথিভুক্ত হয়েছে মোট ৫৬ জনের বয়ান। সুশান্তের পরিবারের মুম্বই পুলিশের প্রতি যে অনাস্থা দেখিয়েছে, সে প্রসঙ্গে কমিশনার সিং বলেন, ‘‌১৬ জুন সুশান্তের বাবা, দিদি এবং জামাইবাবুর বয়ান নথিভুক্ত করা হয়। তখন তাঁরা কোনও কিছু নিয়েই সন্দেহ প্রকাশ করেননি বা তদন্তে গাফিলতির অভিযোগ তোলেননি।’ বিহার পুলিশ যে মুম্বই পুলিশের অসহযোগিতার অভিযোগ এনেছে, সে সম্পর্কেও কমিশনারের বক্তব্য, অসহযোগিতার প্রশ্ন নেই। বিহার পুলিশের যদি বৈধ অধিকার থাকে এই মামলার তদন্ত করার, তা হলে সেটা আগে তাদের প্রমাণ করতে হবে।

Bihar Police FIR says Rs 15 cr were siphoned off from Sushant's account. During the probe, we found he had Rs 18 cr in his account of which around Rs 4.5 cr are still there. Till now no direct transfer to Rhea Chakraborty's account found, still probing: Mumbai Police Commissioner pic.twitter.com/GaX1AJad69

জনপ্রিয়

Back To Top