অদিতি রায়: শনিবার স্টুডিওপাড়া ছিল মেজাজে জমজমাট। কলাকুশলীদের হাঁকডাক, ব্যস্ততা, চায়ের কাপে ঘন ঘন চুমুক, চটজলদি শট নিয়ে এপিসোড তোলার তাড়াহুড়ো। মেকআপ রুমে মেকআপ আর্টিস্ট, হেয়ার ড্রেসার এবং ড্রেসারদের তৎপরতায় একে একে চরিত্র হয়ে উঠেছেন জনপ্রিয় শিল্পীরা। বিকেল থেকে রাত— আবার আমজনতার ড্রইংরুমে পৌঁছে যাওয়ার দিনলিপি যে শুরু হয়ে গেছে। কত মানুষের রুটিরুজি বেঁচে গেল মুখ্যমন্ত্রীর মধ্যস্থতায়, স্বীকার করছেন ধারাবাহিক ইন্ডাস্ট্রির কলাকুশলীরা। ‘অন্দরমহল‌’‌-‌এর পরমেশ্বরী ওরফে কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, ‘‌বকুলকথা’‌ ধারাবাহিকের বকুল ওরফে ঊষসী রায় দারুণ খুশি। কারণ, এতদিন একসঙ্গে কাজ করতে করতে এই ধারাবাহিকের সংসারও যেন তাঁদেরই সংসার। ধারাবাহিকের পাত্রপাত্রীরা আত্মীয়–বন্ধু। বিদেশ থেকে ফিরে জেটল্যাগ কাটিয়ে এদিনই শুটিং শুরু করলেন ইন্দ্রাণী হালদার। নিউ থিয়েটার্সে তাঁকে দেখা গেল ‘সীমারেখা‌’‌র শুটিংয়ে। দৃশ্যতই খুশি। বিদেশে থাকতেই হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেয়েছিলেন শুটিং বন্ধের। অপেক্ষায় ছিলেন কাজে ফেরার। নিউ থিয়েটার্সেই দেখা গেল জি-‌বাংলার এক ধারাবাহিক ‘জয়ী‌’‌র শুটিং চলছে পুরোদমে। অন্যদিকে, ভারতলক্ষ্মী স্টুডিওতেও ‘সাত ভাই চম্পা‌’‌ ও ‘‌আমলকী’‌র শুটিং চলছে। ‘‌রাণী রাসমণি’‌র শুটিং চলছে ইন্দ্রপুরী স্টুডিওতে। ইন্দ্রপুরীর ১৩ নম্বর ফ্লোরে চলছে ‘‌কৃষ্ণকলি’‌র শুটিং। এপিসোড ব্যাঙ্কিং-‌এর জন্য কাজের গতিতে যেন ধুম লেগেছে!‌ সবমিলিয়ে শারদীয়ার প্রাক্কালে মা দুর্গার আগমনের আগেই প্রাণপ্রতিষ্ঠা হল ইন্ডাস্ট্রিতে, ঢাকে কাঠি পড়ল আসন্ন উৎসবের। খুশি সিরিয়াল সংসারের কলাকুশলী, খুশি সিরিয়ালের দর্শকরাও।

 

নিউ থিয়েটার্স স্টুডিওতে ক্যামেরার সামনে ইন্দ্রাণী হালদার। শনিবার। ছবি: সুপ্রিয় নাগ

জনপ্রিয়

Back To Top